স্ত্রী-শাশুড়িকে খুন করে আত্মঘাতী যুবকের খবরে জীবিত দম্পতির ছবি প্রকাশ টাইমস অফ ইন্ডিয়ায়! তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়ায়

বেঙ্গালুরুতে স্ত্রী শিল্পা এবং কলকাতায় শাশুড়ি ললিতা ঢনঢনিয়াকে হত্যা করার পর আত্মঘাতী ৪২ বছরের অমিত আগরওয়াল। সোমবারের এই ঘটনার খবর করতে গিয়ে একই নামের জীবিত এক দম্পতির ছবি প্রকাশ করল দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া! যার জেরে তোলপাড় সোশ্যাল মিডিয়ায়।
জোড়া খুন ও এক আত্মহত্যার ঘটনায় সোমবার তোলপাড় পড়ে যায় কলকাতা এবং বেঙ্গালুরু পুলিশের অন্দরে। কলকাতা পুলিশ সূত্রে খবর, বেঙ্গালুরুর বাসিন্দা স্ত্রী শিল্পীর সঙ্গে গত ২ বছর ধরে সমস্যা চলছিল অমিত আগরওয়ালের। তাঁদের বিবাহ বিচ্ছেদের মামলাও চলছিল। এর মধ্যেই অমিত বেঙ্গালুরুতে পেশায় চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট স্ত্রীকে খুন করে। তারপর স্পাইস জেটের বিমান ধরে সোজা কলকাতা। শহরে নেমেই অমিত আগরওয়াল যায় তাঁর শ্বশুরবাড়িতে। সেখানে শাশুড়ির সঙ্গে একপ্রস্থ কথা কাটাকাটিও হয়। তারপরই আচমকা বন্দুক বের করে গুলি করে দেয় শাশুড়িকে। আচমকা এমন ঘটনায় হতবাক শ্বশুর ফ্ল্যাট থেকে বাইরে বেরিয়ে দরজা বন্ধ করে দেন। গোটা ঘটনার কথা জানান প্রতিবেশীদের। খবর যায় ফুলবাগান থানাতেও। পুলিশ গিয়ে দরজা খুলে ফ্ল্যাটে ঢুকতেই চোখে পড়ে শাশুড়ি এবং অমিত আগরওয়াল, দু’জনেরই লাশ পড়ে মাটিতে। কাছেই পড়ে রয়েছে বন্দুক।
এই ঘটনার খবর করতে গিয়ে মৃত দম্পতির ছবি ছাপতে গিয়ে দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়ার ওয়েবসাইটে ব্যবহার করা হয় অন্য এক জীবিত দম্পতির ছবি।
স্ত্রী-শাশুড়িকে খুন করে নিজে আত্মঘাতী হওয়ার যে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছিল, তা দেখে চমকে ওঠেন ছবির জীবিত অমিত এবং শিল্পী আগরওয়াল। ট্যুইটারে সেই ছবি দিয়ে একটি ভিডিও আপলোড করেন ওই দম্পতি।

পরে ভুল ছবি দেওয়ার বিষয়টি মেনে নিয়ে দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া ত্রুটি সংশোধন করেছে। তবে ততক্ষণে অনেকটাই দেরি হয়ে গিয়েছে। এই ভুল নিয়ে টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে বিঁধে সেই ভিডিও রিট্যুইট করেন সাংবাদিক ফায়ে ডিসুজা।

ভিডিও সূত্র: ট্যুইটার

Comments
Loading...