কেন্দ্রের জেনোম ম্যাপিং গ্রুপের প্রধান শাহিদ জামিলের পদত্যাগ, সমালোচনার জের?

ব্যক্তিগত কারণে সরে গেলেন বলে জানিয়েছেন শাহিদ জামিল

ভারতীয় SARS-COV-2 জেনোমিক্স কনসোর্টিয়ামের প্রধানের পদ থেকে সরে গেলেন ভাইরাস বিশেষজ্ঞ ডাক্তার শাহিদ জামিল। ব্যক্তিগত কারণে সরে গেলেন বলে জানিয়েছেন শাহিদ জামিল। যদিও পর্যবেক্ষকরা বলছেন অন্য কথা।

এ বছর জানুয়ারিতে SARS-COV-2 একাধিক ভ্যারিয়েন্টের জিনোম সিকোয়েন্সিংয়ের কাজ করার জন্য বৈজ্ঞানিক সংস্থা INSACOG প্রতিষ্ঠা হয়েছিল। এই কনসোর্টিয়ামটি সারা দেশ থেকে ভাইরাসের জিন সিকোয়েন্সিং পরিচালনার জন্য দশটি পরীক্ষা কেন্দ্রকে নিয়ে একটি নেটওয়ার্ক পরিচালনা করে। কনসোর্টিয়ামটিকে কাজ করার জন্য ছয় মাসের মেয়াদ পেয়েছিল। পরে সেই সময় আরও বাড়ানো হয়। এই কনসোর্টিয়ামের প্রধান ছিলেন প্রখ্যাত ভাইরাস বিশেষজ্ঞ শাহিদ জামিল।

সম্প্রতি দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকরে এই ভাইরাস বিশেষজ্ঞ কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ করেছিলেন। ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে কেন্দ্রের সমালোচনা শোনা গিয়েছিল তার মুখে। জানিয়েছিলেন, সময় থাকতেই দ্বিতীয় ঢেউয়ের বিপদ সম্পর্কে কেন্দ্রীয় সরকারকে জানানো হয়েছিল।

তিনি বলেছিলেন, জানুয়ারি মাসেই ভাইরাস নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে বলে ঘোষণা করেছিল কেন্দ্র। কিন্তু এর পরবর্তী ধাপ সম্পর্কে কোনও ব্যবস্থা নেয়নি সরকার।

তিনি নিউ ইয়র্ক টাইমসে লিখেছেন, কোভিড পরীক্ষা ও রোগীদের আইসোলেট করার বিষয়ে তিনি জোর দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। এছাড়াও হাসপাতালগুলিতে শয্যা বাড়ানো সম্পর্কেও সরকারকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছিল।

অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের টাস্ক ফোর্স গড়ার নিন্দা করেছেন শাহিদ জামিল। বলেছেন, এটা খুব দুর্ভাগ্যজনক যে, চিকিৎসকদের আমরা অক্সিজেন সরবরাহ নিয়ে দোষারোপ করছি। চিকিৎসকরা ওষুধ নিয়ে তথ্য দিতে পারবেন। কিন্তু অক্সিজেন সরবরাহ নিয়ে তাদের হাতে কিছু থাকে না, মনে করেন শাহিদ জামিল।

Comments
Loading...