ভারতের আবহাওয়া সংক্রান্ত ভবিষ্যদবাণী ৪৪ শতাংশই ভ্রান্ত, জানা গেল ‘আরটিআই’ সূত্রে

ভারতীয় আবহাওয়া দফতরের ভবিষ্যদবাণীর ৪৪ শতাংশই ভ্রান্ত। সাধারণ মানুষের অভিজ্ঞতায় এটা নতুন কোনও তথ্য নয়। আবহাওয়া দফতরের সতর্কতা মেনে ছাতা নিয়ে বেরোলেও বৃষ্টি হয় না, এমন অভিজ্ঞতা সবারই কম-বেশি আছে। কিন্তু দেশের আবহাওয়া দফতর নিজেই যদি স্বীকার করে নেয়, তাদের পূর্বাভাষ শতকরা ৪৪ ভাগ ক্ষেত্রে মেলে না, তবে?
সম্প্রতি জনৈক চেতন কোঠারি নামে মুম্বইয়ের এক ব্যক্তির করা ‘আরটিআই’ এর সূত্রেই এই তথ্য জানা গিয়েছে। কোঠারি আরটিআইয়ের মাধ্যমে জানতে চেয়েছিলেন, ২০১৭ সালে ভারতীয় আবহাওয়া দপ্তর মুম্বইয়ের বৃষ্টির পূর্বাভাষ নিয়ে ৩২ বার ভবিষ্যদবাণী করেছিল। যার মধ্যে মাত্র ১৪টি সঠিক পরিগণিত হয়। এর ফলে গড় পরিসংখ্যান থেকেই বোঝা যাচ্ছে, ভারতের আবহাওয়া দপ্তরের ভবিষ্যদবাণীর মধ্যে ৪৪ শতাংশই ভ্রান্ত। ইন্ডিয়ান মেটারোলজিকাল ডিপার্টমেন্ট বা আইএমডির অধিকর্তা কে.এস হোঁসলিকর উত্তরে জানিয়েছেন, সব মরশুমে আবহাওয়া এক হয় না। বিভিন্ন মরশুমে জলবায়ুর সঙ্গে বৃষ্টির তারতম্য ঘটেই থাকে। যা সব সময় একবারে সঠিক করে বলা সম্ভব নয়’। তিনি আরও জানান, ‘প্রতি বছর এই সমস্যা হয় না। আবহাওয়া যেহেতু পরিবর্তিত একটি বিষয় সেক্ষেত্রে মাঝে মাঝে কিছু ভুল হয়েই থাকে’। কারণ যাই হোক না কেন, আইএমডি-র এই সাফাইকে ব্যর্থতার ঢাকার অজুহাত হিসেবেই দেখছে বিশেষজ্ঞমহল। মহারাষ্ট্র সরকারের স্বাধীন আবহাওয়া উপদেষ্টা অশোক দেওরা জানান, ‘সরকারি প্রতিষ্ঠান হিসেবে আইএমডির এই প্রবণতা মারাত্মক। এর ফলে সাধারণ মানুষের পাশাপাশি যে কোনওরকম সরকারি কাজে ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কাও থাকে প্রবল’। সম্প্রতি বিশ্বের আবহাওয়া সংক্রান্ত একটি সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, নিউইয়র্ক, লন্ডন, প্যারিস, দুবাইয়ের মতো শহরের আবহাওয়ার ভবিষ্যতবাণী প্রায় ৮৫ থেকে ৯০ শতাংশই সঠিক। সেখানে ভারতের এই অবস্থান যথেষ্টই হতাশাজনক।

Comments
Loading...