কখনও সিবিআইয়ে কাজ না করা ঋষিকুমার কি সংস্থার ডিরেক্টর হলেন অজিত ডোভালের সুপারিশে? প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলে

সিবিআই-এর নয়া ডিরেক্টর পদে ঋষিকুমার শুক্লাকে নিয়োগের বিরোধিতা করলেন লোকসভার বিরোধী নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে। সূত্রের খবর, কোনও দিন সিবিআইয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা না থাকা সত্ত্বেও তাঁকে দেশের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ তদন্তকারী সংস্থার শীর্ষ পদে বসানোর বিরুদ্ধে প্রশ্ন তুলে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বাধীন নিয়োগ কমিটিতে বিরোধিতা করেন মল্লিকার্জুন খাড়গে। পাশাপাশি, প্রশ্ন উঠছে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে ঋষিকুমারের সম্পর্ক নিয়ে।

কে এই ঋষি কুমার শুক্লা ?

মধ্য প্রদেশের গোয়ালিয়রে ঋষিকুমার শুক্লা দর্শনে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভের পর ১৯৮৩ সালে সিভিল সার্ভিস পাশ করেন। কলেজ জীবনে হকি প্লেয়ার হিসেবে খেলেছেন জেলা স্তরে। চাকরির প্রথমে অবিভক্ত মধ্য প্রদেশের রায়পুরের পুলিশ সুপার হন তিনি। পরে পুলিশ সুপার হয়ে মধ্য প্রদেশের দামো, শিবপুরি ও মান্দসোরের দায়িত্ব সামলেছেন। এরপর, ঋষিকুমার শুক্লা মধ্য প্রদেশের অতিরিক্ত ডিজি (ইন্টিলেজেন্স) পদে ছিলেন ২০০৯ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত। ২০১৬ সালে মধ্য প্রদেশরই ডিজিপি হন। আমেরিকা থেকে ক্রাইসিস ম্যনেজমেন্টেরও প্রশিক্ষণ রয়েছে তাঁর।
কিন্তু মল্লিকার্জুন খাড়গের পাশাপাশি অনেকেই অভিযোগ তুলছেন, ঋষিকুমার কোনওদিন সিবিআইয়ে কাজ করেননি। গুরুত্বপূর্ণ কোনও তদন্তের মামলায় তিনি যুক্ত ছিলেন না কখনও। তা সত্ত্বেও কেন তাঁকে সিবিআই প্রধান করা হল? সিবিআইয়ে কাজ না করলেও, ৫৮ বছরের ঋষিকুমার শুক্লার ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোতে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। তিনি ১৯৯২ সাল থকে ১৯৯৬ এবং ২০০০ সাল থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ মামলার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য, ১৯৯৩ সালে মুম্বই বিস্ফোরণে জড়িত আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন আবু সালেমের বিরুদ্ধে কেস। ইন্টেলিজেন্স ব্যুরোতে কাজ করার সূত্রে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভালের সঙ্গে তাঁর বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে বলে সূত্রের খবর। অজিত ডোভালের সঙ্গে সম্পর্কের পরিপ্রেক্ষিতেই ঋষিকুমারকে সিবিআই প্রধান করা হল বলে অভিযোগ তুলছেন কেউ কেউ।

Comments
Loading...