উইং কমান্ডার অভিনন্দনের জন্য গর্বিত গোটা দেশ, তামিলনাড়ুতে গিয়ে বললেন মোদী, বিরোধীদের তীব্র আক্রমণ

উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের রাজ্য তামিলনাড়ুতে গিয়ে তাঁর ভূয়সী প্রশংসা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বললেন, আজ প্রত্যেক ভারতীয় উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানের জন্য গর্ব অনুভব করেন। শুক্রবার যখন প্রধানমন্ত্রী কন্যাকুমারীতে একগুচ্ছ সরকারি প্রকল্পের উদ্বোধন করছিলেন তখন, ওয়াঘা সীমান্তে উইং কমান্ডার অভিনন্দনের দেশে ফেরার পথ চেয়ে জড়ো হয়েছেন বিশাল সংখ্যক মানুষ।
এদিনের সভা থেকে মোদী বলেন, গত দু’দিনে ভারতের শক্তি সম্পর্কে ওয়াকিবহাল হয়েছে সবাই। বিশ্বের প্রথম সারির দেশগুলি পুলওয়ামায় ঘটনার পরে ভারতের পাশে দাঁড়িয়েছে। মোদী বলেন, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে ভারত আর অসহায় নয়। পাশাপাশি, পূর্বতন ইউপিএ সরকারকে খোঁচা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০৪ সাল থেকে ২০১৪ (বিজেপি সরকার ক্ষমতায় আসার আগে পর্যন্ত) দেশে একের পর এক নাশকতার ঘটনা ঘটেছে। দেশের মানুষ আশা করেছিলেন সরকার কোনও বড় পদক্ষেপ নেবে কিন্তু কিচ্ছু হয়নি, দাবি মোদীর। ২৬/১১-এর উদাহরণ দিয়ে মোদী বলেন, মুম্বই হামলার পরেও সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। কিন্তু ২০১৬ সালে উরি হামলার পর ভারত সন্ত্রাসবাদীদের প্রত্যুত্তর দিয়েছে। আর পুলওয়ামার ঘটনার পরেও ভারত সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে তার অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়েছে বলে দাবি প্রধানমন্ত্রীর। মোদীর দাবি, তাঁর সরকারের আমলে সন্ত্রাসবাদ ও সন্ত্রাসবাদীদের প্রভাব অনেকটাই নিয়ন্ত্রণ করা গিয়েছে এবং আগামীতে আরও কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে। পাশাপাশি, পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার ঘটনায় বিরোধী দলগুলি রাজনীতি করছে বলে অভিযোগ প্রধানমন্ত্রীর। তিনি বলেন, অন্যান্য দেশ যখন সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে কড়া বার্তা দেওয়ার জন্য ভারতকে সমর্থন জানাচ্ছে, তখন দেশেরই কয়েকটি রাজনৈতিক দলের গলায় সন্দেহের সুর। মোদীর কটাক্ষ, দুর্ভাগ্যক্রমে বিরোধীদের মোদীকে ঘৃণা এখন দেশের প্রতি ঘৃণায় পরিবর্তিত হয়েছে।
প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী একবার মন্তব্য করেছিলেন, সরকার আসবে যাবে কিন্তু দেশ থাকবে। অনেকটা সেই সুরই এদিন প্রধানমন্ত্রী মোদীর গলায়। বিরোধীদের উদ্দেশে তাঁর কটাক্ষ, মোদী আসবে যাবে, কিন্তু দেশ থাকবে।

Comments
Loading...