আমেরিকা, ইতালি, স্পেনের মতো উন্নত দেশের তুলনায় ভারতে করোনায় মৃত্যু হার কম কেন? কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা

রোজ বাড়ছে দেশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা, মৃত্যু হয়েছে প্রায় ২৫০ জনের। তবে সারা বিশ্বের নিরিখে এ দেশে করোনায় আক্রান্তদের মৃত্যু হার ৩ শতাংশ কম, এমনকী ব্রিটেন, ইতালি, স্পেনের মতো ইউরোপের উন্নত অর্থনীতির দেশের থেকে ভারতে করোনা পরিস্থিতি ভালো, এমনটাই বলছেন দেশের চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা।
প্রসঙ্গত, চিন থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনায় এ দেশে প্রথম মৃত্যু হয় কর্ণাটকের এক বৃদ্ধের। গত ১০ মার্চ মৃত্যু হয় আরব থেকে ফেরা ওই বৃদ্ধের। তারপর এ দেশে বয়স্কদের উপর করোনার থাবা চরম হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মত, ভারতের জনসংখ্যার গড় বয়স কম হওয়ায় চরম আঘাত কিছুটা হলেও কম হয়েছে। ইতালি হোক বা স্পেন, যে উন্নত দেশগুলিতে করোনায় মৃত্যু হার বেশি, সেখানকার গড় বয়স ভারতের চেয়ে অনেক বেশি।
চলতি সপ্তাহে দেওয়া স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তথ্য অনুযায়ী, ভারতে করোনা আক্রান্ত মৃতদের মধ্যে ৬০ বছরের উপর রয়েছেন ৬৩ শতাংশ মানুষ। ৩০ শতাংশ মৃতের বয়স ৪০ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে এবং করোনায় মৃত বাকি ৭ শতাংশের বয়স ৪০ এর নীচে।
ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৭ হাজার, মৃত্যু হয়েছে প্রায় ২৫০ জনের। মোট আক্রান্তের প্রেক্ষিতে করোনায় মৃত্যু হার ৩.১ শতাংশ।

উন্নত দেশগুলির অবস্থা কীরকম?

আমেরিকার সরকারি তথ্য বলছে, সে দেশের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৪ লক্ষ ২৭ হাজার ৪৬০ জন, মৃত্যু হয়েছে ১৪ হাজার ৬৯৬ জনের। আক্রান্তের নিরিখে মৃত্যু হার ৩.৪ শতাংশ। তবে জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য অনুযায়ী, আমেরিকায় করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা ১৬ হাজার ৬৮৬ এবং মৃত্যু হার ৩.৫৭ শতাংশ।

ভারতের চেয়ে ইউরোপের দেশগুলিরও করোনায় মৃত্যু হার অনেকটাই বেশি। যেমন স্পেনে আক্রান্তের মধ্যে মৃত্যু হার ৯.৭৩ শতাংশ, ইতালিতে ১২.৭২ শতাংশ। ব্রিটেনে করোনায় মৃত্যু হার ১২ শতাংশ।
সেদিক থেকে জার্মানি সংক্রমণের হার কিছুটা হলেও নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়েছে। সে দেশের মৃত্যু হার মাত্র ২.০৯ শতাংশ।
করোনা আক্রান্ত বিশ্বের অন্যান্য দেশের মধ্যেও ভারতে করোনায় মৃত্যু হার অনেকটাই কম। করোনা পরিসংখ্যানের ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার দেখাচ্ছে, বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত মানুষের গড় মৃত্যু হার ৫.৯৮ শতাংশ। তুলনায় ভারতে মৃত্যু হার প্রায় অর্ধেক।
ভারতে আগে থেকে লকডাউনের সিদ্ধান্ত এবং গড় বয়সের হার কম হওয়ায় মৃত্যু হার অনেকটা কম বলে মত বিশেষজ্ঞদের। যদিও স্থান ভেদে আবার দেশে করোনার মৃত্যু হার একেক রকম। যেখানে ইন্দোরে ১০ শতাংশ, সেখানে হরিয়ানায় করোনা আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যু হার ১ শতাংশ।
ভারতে ২০ থেকে ৪০ বছর বয়সীদের মধ্যে করোনা আক্রন্তের সংখ্যা প্রায় ৪০ শতাংশ। ৬০ বছরের উপর বয়স্কদের মধ্যে আক্রান্তের হার ১৯ শতাংশ। কিন্তু বিভিন্ন বয়সজনিত অসুখ, উচ্চ রক্তচাপ, সুগার, ডায়াবেটিস, ফুসফুসের অসুখ ইত্যাদি বয়স্কদের বেশি হওয়ার কারণে তাঁদের মৃত্যু হচ্ছে, জানাচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

Comments
Loading...