জাঁকিয়ে শীত দক্ষিণবঙ্গে, নতুন বছরের শুরুতে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস

সোমবারও জাঁকিয়ে শীত কলকাতা (Winter In Kolkata) সহ দক্ষিণবঙ্গে। হাড়কাঁপানো শীতে কুয়াশার চাদরে গোটা উত্তরবঙ্গ। তবে ফের পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে নতুন বছরে শুরু থেকেই পারদ উর্দ্ধমুখী হবে। আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, জম্মু-কাশ্মীর, হিমাচলপ্রদেশে পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ঢুকছে। যার ফলে মঙ্গলবার থেকে এ রাজ্যের তাপমাত্রা সামান্য বাড়বে। নতুন বছরের শুরুতে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাসও দিল হাওয়া অফিস।
২ জানুয়ারি থেকে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে।
রবিবার শহরের (Winter In Kolkata) সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১১.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের চেয়ে ৩ ডিগ্রি কম। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২৩.১ ডিগ্রি, তাও স্বাভাবিকের চেয়ে ৩ ডিগ্রি কম। সোমবার কলকাতার তাপমাত্রা ১১ ডিগ্রি সেলসিয়াস বলে দেখাচ্ছে ইন্ডিয়ান মেটেরোলজিক্যাল ডিপার্টমেন্টের ওয়েবসাইট। আগামী ৩ দিন আপাতত কুয়াশায় মোড়া ও আংশিক মেঘলা আকাশ দেখা যাবে। সেই সঙ্গে মঙ্গলবার থেকে ১ ডিগ্রি তাপমাত্রা বাড়বে বলে পূর্বাভাস।
এদিকে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে মঙ্গলবার থেকেই তাপমাত্রা বাড়বে। সোমবার কোচবিহারের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৬ ডিগ্রি এবং সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। কোচবিহার সহ উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতে এদিন শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। তবে মঙ্গলবারই কোচবিহারের তাপমাত্রা একলাফে ২ ডিগ্রি বাড়তে পারে। দার্জিলিঙে আজও কাঁপুনি ধরা শীতের পরিবেশ। মঙ্গল ও বুধবারও তাপমাত্রা ২ ডিগ্রির আশেপাশে থাকবে। তবে ২ জানুয়ারির পর থেকেই পারদ উঠবে, সেই সঙ্গে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিপাত হতে পারে শৈল শহরে।
কনকনে শীতে কাঁপছে গোটা উত্তর ভারত। রাজধানী দিল্লিতে বইছে শৈত্যপ্রবাহ। পারদ নেমেছে ৩ ডিগ্রিতে। ঘন কুয়াশার কারণে দিল্লি বিমানবন্দর থেকে একাধিক বিমান ঘুরিয়ে দেওয়া হয়েছে। নর্দার্ন রেলওয়ের ৩০ টিরও বেশি ট্রেন দেরিতে চলছে।

Comments
Loading...