আগ্রায় মোগল মিউজিয়ামের নাম বদলে শিবাজি মহারাজের নামে, মোগলরা আমাদের হিরো হল কবে! প্রশ্ন যোগীর

কথা ছিল শাহজাহানের তৈরি তাজমহলের পাশে ৬ একর জায়গা জুড়ে তৈরি হবে মোগল মিউজিয়াম। তাতে তুলে ধরা হবে মোগল যুগের সংস্কৃতি, শিল্পদ্রব্য, চিত্র, পোশাক এবং অস্ত্রশস্ত্র। সোমবার সেই কাজের তদারকি করতে গিয়ে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দিলেন, মোগল মিউজিয়ামের নাম হবে ছত্রপতি শিবাজি মহারাজের নামে।

উত্তরপ্রদেশে ক্ষমতায় আসার পর জায়গার নাম বদল যোগী আদিত্যনাথ সরকারের কাছে নতুন কিছু নয়। এলাহাবাদের নাম বদলে হয়েছে প্রয়াগরাজ। মোগলসরাই জংশনের নাম বদলে গিয়েছে পণ্ডিত দীন দয়াল উপাধ্যায়ের নামে। ফৈজাবাদ হয়েছে অযোধ্যা। এবার মোগল সাম্রাজ্যের নিদর্শন তুলে ধরার মিউজিয়ামের নাম হতে চলেছে শিবাজি মহারাজের নামে।

সোমবার আগ্রা গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। সেখানেই মোগল মিউজিয়ামের কাজ খতিয়ে দেখেন তিনি। বলেন, মোগলরা আবার আমাদের হিরো হল কবে? এই দাসত্বের মানসিকতা থেকে বেরোতে হবে। বিজেপি সরকার সেই কাজ করবে। তারপর যোগী আদিত্যনাথ হিন্দিতে ট্যুইট করে জানান, আগ্রার নির্মীয়মান মিউজিয়ামটি ছত্রপতি শিবাজি মহারাজের নামে করা হবে। আপনাদের নতুন উত্তরপ্রদেশে দাসত্বের মনোভাবের কোনও জায়গা নেই। শিবাজি মহারাজ আমাদের হিরো। জয় হিন্দ, জয় ভারত।

মোগল সাম্রাজ্যের নিদর্শন যে মিউজিয়ামে তুলে ধরা হচ্ছে, তার নাম শিবাজি মহারাজের নামে হয় কী করে? এই প্রশ্ন উঠলেও তার জবাব আসেনি সরকারের পক্ষ থেকে। ইতিহাসবিদরা জানাচ্ছেন, ১৫২৬-১৫৪০ এবং ১৫৫৫-১৮৫৭, এই দুই ভাগে ভারত শাসন করেন মোগল সম্রাটরা। শাসনকালে দিল্লি, আগ্রা সহ একাধিক জায়গায় অসংখ্য নির্মাণ আজও তার সাক্ষ্য বহন করে, যেমন তাজমহল বা লাল কেল্লা। অন্যদিকে ছত্রপতি শিবাজি মহারাজ ১৬ শতাব্দীর মারাঠা যোদ্ধা। জীবনের বেশিরভাগ সময় মোগলদের বিরুদ্ধেই লড়তে হয়েছে শিবাজি মহারাজকে। সামরিক কৌশলে তাঁর জুড়ি মেলা ছিল ভার।

ইতিহাসবিদরা বলছেন, শিবাজি মহারাজকে সম্মান জানাতে চাইলে রাজ্যে তাঁর উপর কোনও মিউজিয়াম করলেই তো চলতো। কিন্তু মোগল মিউজিয়ামের নাম বদলে শিবাজির নামে করার অর্থ কী? রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, এটা যোগী রাজনীতির ট্রেডমার্ক। তাঁরা মনে করিয়ে দিচ্ছেন, ২০১৫ সালে মোগল মিউজিয়ামের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন অধুনা সমাজবাদী পার্টির নেতা তথা উত্তরপ্রদেশের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব। তাজমহলের পাশেই প্রস্তাবিত এই মিউজিয়ামে মোগল সাম্রাজ্যের বিভিন্ন জিনিসপত্র রাখার পাশাপাশি মোগল যুগ নিয়ে গবেষণার কাজ হওয়ার কথা ছিল। সেই সময়ের প্রামাণ্য দলিল হিসেবে গড়ে ওঠার কথা ছিল মোগল মিউজিয়ামের। সেই কাজ জোরকদমে চলছে। স্রেফ মোগল মিউজিয়ামের নাম বদলে হয়ে গিয়েছে শিবাজি মহারাজের নামে। বিজেপির দাবি, এটাই আসল ভারতীয় সংস্কৃতি।

Comments
Loading...