কী চলছে এ সব! এনআরসি ইস্যুতে রং দে বাসন্তী তারকা সিদ্ধার্থের ট্যুইট আক্রমণ অমিত শাহকে

রং দে বাসন্তী ছবিতে নিজের মন্ত্রী বাবাকে খুন করেছিল করণ সিংহানিয়া। যুদ্ধ বিমান কেনায় দুর্নীতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে চরম সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হয় ছেলে। খুন করে নিজের বাবাকে। রং দে বাসন্তী ছবির এই ঘটনা সাড়া ফেলেছিল দেশে। বিতর্ক তৈরি হয়েছিল এই দৃশ্যায়ন নিয়ে। রিলের করণ সিংহানিয়া, রিয়্যাল লাইফেও একই রকম প্রতিবাদী।

এনআরসি নিয়ে ইতিমধ্যেই দেশজুড়ে শুরু হয়ে গিয়েছে তীব্র বিতর্ক। এনআরসির নামে রাজনীতির ডিভিডেন্ড ঘরে তুলতে চাইছে বিজেপি, এই দাবি করে সিপিএম, কংগ্রেস সহ প্রায় প্রত্যেকটি বিরোধী রাজনৈতিক দল এর বিরোধিতায় সোচ্চার হয়েছে। এবার এই ইস্যুতে সরাসরি কলকাতায় অমিত শাহের মন্তব্য তুলে ধরে তীব্র আক্রমণ শানালেন রং দে বাসন্তীর করণ সিংহানিয়া ওরফে অভিনেতা সিদ্ধার্থ সূর্যনারায়ণ।

মঙ্গলবার কলকাতায় এসে এনআরসি নিয়ে দল এবং কেন্দ্রীয় সরকারের অভিমুখ স্পষ্ট করেন অমিত শাহ। বিজেপি সভাপতি বলেছেন, হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, ক্রিশ্চান শরণার্থীদের ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। কিন্তু একবারের জন্যও উচ্চারণ করেননি মুসলিমদের নাম। যা নিয়ে সরব হয়েছে তৃণমূল, সিপিএম। অমিত শাহের এই মন্তব্যের ঘণ্টাখানেকের মধ্যে নবান্ন থেকে তার কড়া জবাব দিয়েছেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। এবার বাংলার মাটিতে দাঁড়িয়ে অমিত শাহের এনআরসি-মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করলেন চেন্নাইয়ের সিদ্ধার্থ।

১ লা অক্টোবর নেতাজি ইন্ডোরে ভাষণের পর অমিত শাহ তখন ব্যস্ত সল্টলেকের একটি পুজোর উদ্বোধনে। এই সময় তাঁর দিকে ধেয়ে এল সিদ্ধার্থ সূর্যনারায়ণের ট্যুইট। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর মন্তব্যকে ট্যাগ করে, সেই ট্যুইটে তিনি লিখেছেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কীভাবে এমন কথা বলছেন? কেবলমাত্র মুসলিম শরণার্থীদের সরকার দেশ থেকে তাড়িয়ে দেবে, একথা বলা কি সংবিধান বিরোধী নয়? কী চলছে এটা? এভাবেই একেবারে প্রকাশ্যে জাতি নির্মূল করার বীজ বপন করা হচ্ছে।

সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে বলিউড তারকা জন আব্রাহাম জানিয়েছিলেন, ঠিক কোন কারণে কেরলে বিজেপির রাজনীতি ছড়িয়ে দেওয়া সম্ভব নয়। তারপরই জনকে লক্ষ্য করে শুরু হয়ে যায় বিজেপিপন্থী ট্রোল আর্মির আক্রমণ। কিন্তু নিজের মন্তব্য থেকে পিছু হঠেননি জন আব্রাহাম। লোকসভা ভোটের সময় বিজেপির হাজার আক্রমণ উপেক্ষা করে বামপন্থী এবং নির্দল প্রার্থীদের প্রচারে বেরিয়ে পড়েছিলেন স্বরা ভাস্কর। প্রচারের পাশাপাশি মোদী-নীতির বিরোধিতা করে ভোটেই দাঁড়িয়ে পড়েছিলেন আরেক অভিনেতা প্রকাশ রাজ। এবার কলকাতায় বলা মন্তব্যকে আক্রমণ করে ট্যুইটারে আগুন জ্বাললেন অভিনেতা সিদ্ধার্থ।

তবে এই প্রথম নয়। বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে এর আগেও একাধিক আক্রমণ শানিয়েছেন ঘোষিত মোদী-বিরোধী সিদ্ধার্থ। তবে বাংলার মাটিতে বলা অমিত শাহের মন্তব্যকে যেভাবে কাঠগড়ায় তুললেন তিনি, তাকে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

Comments
Loading...