সঙ্কটজনক বাজপেয়ী, লাইফ সাপোর্ট সিস্টেমে রাখা হল তাঁকে। দিল্লি যাচ্ছেন মমতা

শারীরিক অবস্থার গুরুতর অবনতি হল প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর। গত প্রায় মাসদুয়েক ধরে বাজপেয়ী দিল্লির এইএমসে চিকিৎসাধীন। বয়সজনিত কারণে গুরুতর অসুস্থ অবস্থাতেই তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। কিন্তু বুধবার বিকেলের পর থেকে তাঁর শারীরিক অবস্থার দ্রুত অবনতি হতে শুরু করে বলে এইমস সূত্রে জানানো হয়েছে। দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে লাইফ সাপোর্ট সিস্টেমে রাখা হয়েছে। তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতির খবর পেয়ে বুধবার রাতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী হাসপাতালে যান। সেখানে তিনি প্রায় ৪০ মিনিট ছিলেন। বাজপেয়ীর বয়স এখন ৯৩ বছর। প্রধানমন্ত্রীর পরে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহও হাসপাতালে যান বাজপেয়ীকে দেখতে।
১৯২৪ সালে গ্বালিয়রে জন্মগ্রহণ করা অটল বিহারী বাজপেয়ী এখনও পর্যন্ত একমাত্র অকংগ্রেসি প্রধানমন্ত্রী যিনি পাঁচ বছরের পুরো মেয়াদ শেষ করেছেন। মোট তিনবার প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন তিনি। ১৯৯৬, ১৯৯৮ এবং ১৯৯৯। ২০০৪ সাল পর্যন্ত দেশের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তিনি। কয়েক বছর ধরেই শারীরিক কারণে তিনি বাড়িতেই বন্দি ছিলেন। ২০১৪ সালে ভারতরত্ন দেওয়া হয় বাজপেয়ীকে। তাঁর শারীরিক অবস্থার গুরুতর অবনতির খবর পেয়ে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই মোদী মন্ত্রিসভার একাধিক সদস্য, লালকৃষ্ণ আদবানিসহ বহু রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এইমসে যান। দুপুরের বিমানেই দিল্লি যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। লোকসভার ১০ বারের এবং দু’বার রাজ্যসভার সাংসদ ছিলেন বাজপেয়ী।
মোরারজি দেশাই সরকারে বিদেশ মন্ত্রকের দায়িত্ব সামলেছেন অটল বিহারী বাজপেয়ী। ১৯৪২ সাল নাগাদ রাজনীতিতে যোগদান করেন তিনি। তারপর থেকে দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে নানা সময়ে বহু গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সামলেছেন। ১৯৭৫ সালে জরুরি অবস্থার সময় গ্রেফতারও হন। তিনি ছিলেন ১৯৮০ সালে বিজেপির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা। তাঁর সঙ্কটজনক অবস্থার খবর ছড়িয়ে পড়তেই এদিন সকাল থেকে বহু সাধারণ মানুষ ভিড় করতে শুরু করেন এইমসের সামনে।

Comments
Loading...