বিহারে বিধানসভা ভোটে লড়বেন ডিজি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে? বিচারক থেকে আমলা কেউই আর সন্দেহের ঊর্ধ্বে নন, খোঁচা মহুয়ার

বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের ঘনিষ্ঠ হিসেবে তিনি পরিচিত। সম্প্রতি সুশান্ত সিংহ রাজপুত মৃত্যুর ঘটনায় খবরের শিরোনামে আসা বিহারের ডিজিপি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে কি বিজেপির টিকিটে আসন্ন বিধানসভা ভোটে লড়বেন?
সূত্রের খবর, মঙ্গলবারই বিহার সরকার ডিজিপি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডের স্বেচ্ছাবসরের আবেদন গ্রহণ করেছে। আর তারপরেই বিহারের বাতাসে জোর গুঞ্জন, আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি কিংবা জেডেইউ-এর টিকিটে প্রার্থী হচ্ছেন গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে। লড়তে পারেন বক্সার বিধানসভা থেকে। এও শোনা যাচ্ছে, ভোটে জিতলে রাজ্যের মন্ত্রিসভাতেও জায়গা পেতে পারেন নীতীশ ঘনিষ্ঠ এই পুলিশ অফিসার।
ডিজিপি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডের নেতৃত্বেই সুশান্ত সিংহ রাজপুত মৃত্যু মামলায় মহারাষ্ট্র পুলিশের সঙ্গে সরাসরি সংঘাতে গিয়েছে বিহার পুলিশ।
বিহারের ভূমিপুত্র সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলায় বিহারের ডিজিপির একাধিক পদক্ষেপ নিয়ে বহু জলঘোলা হয়েছে। মুম্বই পুলিশের কড়া সমালোচনা শোনা গিয়েছে তাঁর মুখে। কখনও তিনি বলেছেন, অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর কোনও যোগ্যতাই নেই বিহারের মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে কথা বলার। এসবের মধ্যে তাঁর বিরুদ্ধে রাজনৈতিক অভিসন্ধি নিয়ে কাজ করার অভিযোগও তুলেছে মহারাষ্ট্র সরকার। আসলে ডিজিপি পাণ্ডের নেতৃত্বেই বিহার পুলিশের একটা দল মুম্বই গিয়ে সুশান্ত মামলার তদন্ত শুরু করেছিল।
এহেন গুপ্তেশ্বর পাণ্ডের রাজনীতিতে আসার ইচ্ছে অবশ্য নতুন নয়। এর আগে ২০১৪ সালে একবার এনডিএ’র টিকিটেই ভোটে লড়ার ইচ্ছেপ্রকাশ করেছিলেন তিনি। সেবারও তিনি বক্সার লোকসভা কেন্দ্রে লড়ার জন্য টিকিট চেয়েছিলেন নীতীশ কুমারের কাছে। কিন্তু সেবার রাজি হননি জেডেইউ প্রধান। এবার অবশ্য সবুজ সংকেত দিয়েছেন নীতীশ কুমার। গুপ্তেশ্বর পাণ্ডেকে বক্সারের কোনও কেন্দ্র থেকে প্রার্থী করা হতে পারে বলে খবর। নিজের ইস্তফাপত্র আগেই ই-মেল মারফৎ বিহারের স্বরাষ্ট্র দফতরে পাঠিয়ে দিয়েছেন ডিজিপি পাণ্ডে। মঙ্গলবার সেই ভিআরএস আবেদন গৃহিত হয়েছে। তাঁর পরিবর্তে ডিজিপি হোমগার্ড এস কে সিংঘলকে দেওয়া হচ্ছে অতিরিক্ত দায়িত্ব।
এদিকে বিহারের ডিজির ভোটে লড়ার খবরের প্রেক্ষিতে তৃণমূল সাংসদ মহুয়া মৈত্রের খোঁচা, আজকাল আমলা, আইপিএস বা সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি কেউই সন্দেহের বাইরে নন। এঁদের প্রত্যেকটি কথা ও কাজ সাধারণ মানুষ বিশ্লেষণ করুন, ট্যুইটারে বিস্ফোরক কৃষ্ণনগরের সাংসদ।

Comments
Loading...