নয়া আরবিআই গভর্নরের যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন গুজরাতের বিজেপি নেতা, দুর্নীতির অভিযোগ আনলেন সুব্রমনিয়ন স্বামী

মঙ্গলবারই রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নতুন গভর্নর পদে শক্তিকান্ত দাসের নাম চূড়ান্ত করেছিল কেন্দ্র। শক্তিকান্তের নাম প্রকাশ পেতেই, গত ২৪ ঘণ্টায় একাধিক প্রশ্ন উঠেছে তাঁকে নিয়ে। ইতিহাসের স্নাতোকত্তর এক ব্যক্তিকে কেন আরবিআই-এর শীর্ষ পদের জন্য বাছা হল তা নিয়ে কটাক্ষ শুরু হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও।
এবার বিজেপির মধ্যে থেকেই প্রশ্ন উঠল শক্তিকান্তের এই পদে বসার যোগ্যতা নিয়ে। গুজরাতের বিজেপি নেতা জয় নারায়ণ ব্যাস ট্যুইটারে এবিষয়ে সরব হয়েছেন। নরেন্দ্র মোদী গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী থাকার সময় তাঁর মন্ত্রিসভারও সদস্য ছিলেন এই বিজেপি নেতা। অন্যদিকে, শক্তিকান্ত দাসের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আছে বলে মুখ খুলেছেন বিজেপি নেতা সুব্রমনিয়ান স্বামী। সব মিলে আরবিআই-এর নয়া গভর্নরকে নিয়ে দলের মধ্যেই অস্বস্তিতে বিজেপি।
ট্যুইটারে ব্যাস লিখেছেন, শক্তিকান্ত দাস ইতিহাসে এমএ। আশা ও প্রার্থনা করি তিনি দায়িত্বে আসার পর আরবিআই’ও যেন ইতিহাসে পরিণত না হয়। ভগবান মঙ্গল করুন এই নয়া পদার্পনের। প্রাক্তন কেন্দ্রীয় আমলা, আইএএস অফিসার শক্তিকান্ত দাসের এই পদে বসার যোগ্যতা আদৌ আছে কিনা তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন এই বিজেপি নেতা।

সংবাদসংস্থাকে জয় নারায়ণ ব্যাস জানিয়েছেন, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অর্থনীতি সম্পর্কে ধারণা আছে, এমন কোনও ব্যক্তিরই আরবিআই গভর্নর পদে বসা উচিত। অর্থনীতির নানা দিক, কঠিন পরিস্থিতি সামলাতে, বুঝতে সংশ্লিষ্ট বিষয়ের কোনও বিশেষজ্ঞকেই আরবিআই শীর্ষ পদে বসালে ভালো হোত বলে তাঁর মত। ব্যাসের এই মন্তব্য সামনে আসতেই প্রশ্ন উঠছে, শক্তিকান্ত দাসকে আরবিআই গভর্নর পদে মনোনীত করেছে কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। অথচ সেই দলেরই এক নেতা প্রকাশ্যে এরকম সমালোচনা করছেন, এটা কীসের ইঙ্গিত। যদিও এই নেতা জানিয়েছেন, তিনি বিজেপিতেই আছেন, শুধুমাত্র নিজের মত জানিয়েছেন।

Comments
Loading...