অসম এনআরসিতে তথ্য বিকৃতির অভিযোগে অপসারিত কো-অর্ডিনেটর প্রতীক হাজেলার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হল গুয়াহাটিতে।
অসমের নাগরিকপঞ্জি ভুলে ভরা বলে আগেই প্রতীক হাজেলার বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলেছিল বিজেপি। প্রতীকের বিরুদ্ধে এফআইআর-ও দায়ের হয়েছিল। পরে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে অসমের এনআরসি কো-অর্ডিনেটরের পদ থেকে সরে যান তিনি। যদিও গত অগাস্ট মাসে নাগরিকপঞ্জি তালিকা প্রকাশের আগে আপডেট নামে তথ্য বিকৃতি হয়েছে বলে প্রতীক হাজেলার বিরুদ্ধে সাইবারক্রাইম মামলা দায়ের হয়েছে। পাশাপাশি, প্রাক্তন কো-অর্ডিনেটর হাজেলার সহযোগী আজুপি বড়ুয়া এনআরসি তথ্য রেকর্ডের পাসওয়ার্ড না দিয়েই পদত্যাগ করায় তাঁর বিরুদ্ধেও এনআরসি কো-অর্ডিনেটরের অফিসের তরফে এফআইআর দায়ের হয়েছে।
স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা অসম পাবলিক ওয়ার্কসের (এপিডব্লিউ) তরফে গুয়াহাটি সিআইডি অফিসে বলা হয়েছে, এনআরসির চূড়ান্ত তালিকায় গুরুত্বপূর্ণ জননথি বিকৃতির অভিযোগে হাজেলার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হোক। পাশাপাশি, তাঁর বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইমেরও অভিযোগ আনা হয়েছে। অন্যদিকে প্রাক্তন এনআরসি কো-অর্ডিনেটরের সহকারীর বিরুদ্ধে আবার এফআইআর দায়ের করেছে খোদ এনআরসি কো- অর্ডিনেটর অফিস।
অসম পাবলিক ওয়ার্কসের পিটিশনের ভিত্তিতেই ২০০৯ সালে এনআরসি আপডেটের নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট।

 

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

social distance