নোট বাতিল পর্বে বিপুল টাকা জমার অভিযোগ, রাহুলের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা আহমেদাবাদ কোঅপারেটিভ ব্যাঙ্কের

ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে মিথ্যা এবং মানহানিকর অভিযোগ আনা হয়েছে, এই দাবি করে সোমবার আহমেদাবাদের এক স্থানীয় আদালতে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর বিরুদ্ধে ফৌজদারি মানহানি মামলা দায়ের করেছে আহমেদাবাদ জেলা কো-অপারেটিভ ব্যাঙ্ক (এডিসিবি)। ব্যাঙ্কের এই আবেদনের প্রেক্ষিতে ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। প্রসঙ্গত, এই আহমেদাবাদ কোঅপারাটিভ ব্যাঙ্কের ডিরেক্টর বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।
ব্যাঙ্কের অভিযোগ, ২০১৬ সালে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিল ঘোষণা হওয়ার পর, প্রথম পাঁচ দিনে ব্যাঙ্কে ৭৪৫.৫৯ কোটি টাকা জমা পড়েছিল বলে যে দাবি রাহুল গান্ধী করেছিলেন তা সম্পূর্ণ মিথ্যা। ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষের দাবি, এত টাকা জমা পড়া তো দূর, ব্যাঙ্কে এত টাকা কোনও দিন ছিলই না। আহমেদাবাদ কোঅপারেটিভ ব্যাঙ্ক এবং ব্যাঙ্কের চেয়ারম্যান অজয় প্যাটেল পৃথকভাবে এই মামলা দায়ের করেছেন বলে জানা গিয়েছে। রাহুলের পাশাপাশি কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরজওয়ালার বিরুদ্ধেও একই অভিযোগে মামলা করা হয়েছে ব্যাঙ্কের পক্ষ থেকে। মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ১৭ সেপ্টেম্বর।
উল্লেখ্য, নাবার্ডের একটি পরিসংখ্যানকে হাতিয়ার করে রাহুল গান্ধী ট্যুইটারে পোস্টের মাধ্যমে এই অভিযোগ এনেছিলেন। কটাক্ষ করেছিলেন এই কোঅপারেটিভ ব্যাঙ্কর ডিরেক্টর অমিত শাহকেও। যা পরবর্তীকালে সাংবাদিক বৈঠক করে জানিয়েছিলেন কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরজওয়ালা। কংগ্রেস সভাপতির এই অভিযোগের পর তা নিয়ে তোলপাড়ও হয়েছিল জাতীয় রাজনীতি। খোদ বিজেপি সভাপতি যে সমবায় ব্যাঙ্কের ডিরেক্টর সেখানে নোট বাতিলের কয়েকদিনের মধ্যে এত বিপুল পরিমাণে টাকা জমা পড়ার রাহুল গান্ধীর দাবিতে দুর্নীতির অভিযোগও ওঠে।

Comments
Loading...