ভগৎ সিংহ, সুকদেব, রাজগুরুকে ভারতরত্ন দেওয়ার দাবি কংগ্রেসের, মোদীকে চিঠি দিলেন মনীশ তিওয়ারি

মহারাষ্ট্র বিজেপির দাবি মতো হিন্দু মতাদর্শের অন্যতম প্রচারক এবং আরএসএস নেতা প্রয়াত সাভারকারকে ভারতরত্ন সম্মানে সম্মানিত করা হবে কিনা সে বিষয়টি নিয়ে যখন দেশের রাজনৈতিক মহলে জোর তর্ক-বিতর্ক চলছে, ঠিক তখন নতুন দাবি করল কংগ্রেস।
কংগ্রেস নেতা তথা সাংসদ মনীশ তিওয়ারি প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লিখে অনুরোধ জানিয়েছেন, দেশের তিন স্বাধীনতা সংগ্রামী ভগৎ সিংহ, রাজগুরু এবং সুকদেবকে ভারতরত্ন সম্মানে সম্মানিত করার জন্য। গত ২৫ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে একটি চিঠি লেখেন এই কংগ্রেস নেতা। সেখানে তিনি লিখেছেন, এই তিন স্বাধীনতা সংগ্রামীর বলিদান এবং ব্রিটিশদের বিরুদ্ধে তাঁদের লড়াই প্রজন্মের পর প্রজন্ম ধরে ভারতীয়দের অনুপ্রাণিত করে এসেছে। চিঠিতে তিনি লিখেছেন, যদি ২০২০ সালের ২৬ শে জানুয়ারি এই তিন স্বাধীনতা সংগ্রামীকে সরকার ভারতরত্ন সম্মানে সম্মানিত করে, তাহলে তাঁদের সর্বোচ্চ বলিদানকে সম্মান জানানো হবে।
উল্লেখ্য এর আগে এআইএমআইএম নেতা আসাউদ্দিন ওয়েসিও এই তিন স্বাধীনতা সংগ্রামীকে ভারতরত্ন সম্মানে সম্মানিত করার দাবি জানিয়েছিলেন।
কিছুদিন আগেই মহারাষ্ট্র বিধানসভা নির্বাচনের ইশতেহার প্রকাশের সময় বিজেপি দাবি করেছিল, ক্ষমতায় এলে ভারতরত্ন দেওয়া হবে সাভারকারকে।
এরপরই বিষয়টি নিয়ে শুরু হয় তীব্র বিতর্ক। কড়া অবস্থান নেয় কংগ্রেস। মনীশ তিওয়ারির কথায়, মহাত্মা গান্ধীকে নাথুরাম গডসে খুন করলেও, এই চক্রান্তের পিছনে অন্যতম অভিযুক্ত ছিলেন সাভারকার। তাঁর কটাক্ষ, তাই সরকার যদি সাভারকারকেই ভারতরত্ন দিতে চায় তাহলে মহাত্মা গান্ধীর ১৫০ তম জন্ম বার্ষিকীতে সরাসরি তাঁর খুনি নাথুরাম গডসেকেও ভারতরত্ন দিয়ে সম্মান জানাতে পারে!
দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী তথা কংগ্রেস নেতা মনমোহন সিংহও সাভারকারকে ভারতরত্ন দেওয়ার প্রস্তাবে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। বলেছিলেন, কংগ্রেসের বিরোধ ব্যক্তি সাভারকারকে নিয়ে নয়, বিরোধ তাঁর চিন্তাধারার বিরুদ্ধে। এবার এই বিতর্কে ভগৎ সিংহ, রাজগুরু এবং সুকদেবকে ভারতরত্ন দেওয়ার দাবি তুলে এই বিতর্কে নয়া মাত্রা যোগ করল কংগ্রেস।

Comments
Loading...