জানেন কী এই খেলোয়াড়রা নিজের বোন বা আত্মীয়ের সাথেই বিয়ে করেছেন

বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় আছেন, যারা কিনা প্রকৃতপক্ষে নিজের পরিবারেই খুঁজে পেয়েছেন তাদের জীবন সঙ্গিনীকে। আমাদের কাছে বিষয়টি একটু অবাক করার মতোন হলেও এরা কিন্তু বেশ চুঁটিয়ে সংসার করছেন। চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক এই জুটিরা কারা…

শহীদ আফ্রিদি এবং নাদিয়াঃ

শহীদ আফ্রিদি তার মামার মেয়ের সাথে সাত পাকে বাঁধা পড়েছেন। এক সাক্ষাৎকারে শহীদ নিজেই জানান তিনি নিজের বাবাকে বিয়ের যোগ্য একটি পাত্রী দেখতে বলেছিলেন। পরে তাঁর বাবাই নাদিয়াকে বেছে নেন। ২২ শে অক্টোবর, ২০০০ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন এই জুটি।

মুস্তাফিজুর রহমান-সামিয়া পারভিন

অন্যদিকে বাংলাদেশের এই ক্রিকেটার সামিয়া পারভিনের সাথে গাঁটছড়া বাঁধেন। বেশ কয়েক বছর আগে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন মুস্তাফিজুর রহমান এবং সামিয়া পারভিন।

সায়েদ আনোয়ার-লুবনা

এই পাকিস্তানি ক্রিকেটারও ১৯৯৬ সালে আত্মীয়র মেয়ে লুবনাকে বিয়ে করেন। লুবনা সম্পর্কে সায়েদের বোন হন। কিছু অপ্রত্যাশিত ঘটনার কারণে ২০০৩ বিশ্বকাপের পরে অবসর নেন সায়েদ।

মোসাদ্দেক হোসেন-শারমিন সামিরা

মাত্র ১৬ বছর বয়েসেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেন এই বাংলাদেশী ক্রিকেটার। শারমিন সামিরার সাথে গাঁটছড়া বাঁধেন। পরের দিকে অবশ্য তাঁদের বিবাহিত জীবন সুখের হয়নি।

ভিড়েন্দর শহবাগ-আরতি আহলাওয়াত

এই দম্পতি বিয়ের বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই জমিয়ে প্রেম করতেন। অবশেষে প্রেমের পরিণতিও পায়। সব মিলিয়ে কেটে গিয়েছে প্রায় বারো বছর। এখন দুই সন্তানের বাবা মা শহবাগ এবং আরতি।

Comments
Loading...