হলফনামায় ভুল তথ্য: বিপাকে ফড়নবিস, বম্বে হাইকোর্টের ক্লিন চিট খারিজ করে নতুন করে শুনানির নির্দেশ সুপ্রিম কোর্টের

বিধানসভা ভোটের মুখে বিরাট অস্বস্তিতে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিস। বম্বে হাইকোর্টের ক্লিন চিট খারিজ করে, ২০১৪ সালের বিধানসভা নির্বাচনী হলফনামায় দুটি ফৌজদারি মামলা আড়ালের অভিযোগে বিজেপি নেতা ফড়নবিসকে ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের মুখোমুখি হওয়ার নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট।
মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট মামলার পর্যালোচনা করে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ জানায়, দুটি ফৌজদারি মামলা সম্পর্কে অবহিত থাকার পরেও নির্বাচনী হলফনামায় তার উল্লেখ করেননি দেবেন্দ্র ফড়নবিস। এরপরেই এই মামলা ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টে শুনানি হবে বলে নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। তবে আগামী ২১ শে অক্টোবর মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচনে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে দেবেন্দ্র ফড়নবিসের ওপর এই মামলার কোনও প্রভাব পড়বে না।
মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ১৯৯৬ সালে একটি প্রতারণা মামলা এবং ১৯৯৮ সালে একটি জালিয়াতি মামলা দায়ের হয়। অভিযোগ, এই দুটি ফৌজদারি মামলার কথাই ২০১৪ সালের নির্বাচনী হলফনামায় উল্লেখ করেননি বিজেপি নেতা দেবেন্দ্র ফড়নবিস। তাঁর বিরুদ্ধে রিপ্রেজেন্টেশন অফ পিপলস অ্যাক্টে মামলা করেন আইনজীবী সতীশ উকে। কিন্তু প্রথমে নিম্ন আদালত ও পরে মুম্বই হাইকোর্টে আইনজীবী উকের আবেদন খারিজ হয়ে যায়। বম্বে হাইকোর্ট ক্লিন চিট দেয় দেবেন্দ্র ফড়নবিসকে। এরপর সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন সতীশ উকে।
নির্বাচনী হলফনামায় তথ্য গোপন করা বা ভুল তথ্য দিলে শাস্তি হিসাবে ৬ মাসের জেল বা জরিমানা অথবা দুটোই হতে পারে।

Comments
Loading...