‘যে সমস্ত তৃণমূল নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মামলা আছে, ক্ষমতায় এলে তা তুলে নেওয়া হবে!’ কাকে বার্তা দিলেন দিলীপ

তাঁদের কর্মীদের মারধর, খুন থেকে মিথ্যে মামলায় ফাঁসানো হচ্ছে বলে বারবার রাজ্যের শাসক দলের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। এবার তাঁর গলায় শোনা গেল অন্য সুর তাঁর। শুধু বিজেপিই নয়, তৃণমূল শিবিরের অনেকের নামেও মিথ্যে মামলার খাঁড়া ঝুলছে বলে দাবি তাঁর। অনেক তৃণমূল কর্মীর নামে মিথ্যে মামলা দায়ের করে রেখেছে। তাঁরা যাতে দল না ছাড়তে পারেন তাই এই ব্যবস্থা। তারপরই দিলীপ ঘোষের ঘোষণা, বাংলায় ক্ষমতায় এলে রাজনৈতিক কর্মীদের মিথ্যে মামলার হাত থেকে মুক্তি দেবেন।

করোনা জয় করে ফিরে এসেছেন দিলীপ ঘোষ। বৃহস্পতিবার নিউটাউনের জ্যাংরায় চা চক্রে হাজির ছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। জর্দা বাগান থেকে মিছিল করে ঘোড়ার গাড়ি চড়িয়ে দিলীপ ঘোষকে চা চক্রে যোগ দিতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে দিলীপ বলেন, নিজের দলের কর্মীদের নিজেরাই হত্যা করে সিপিএম ভাবাবেগের রাজনীতি করত। তৃণমূলও নিজের কর্মীদের নামে মামলা করে রেখেছে, যাতে ভয়ে কেউ দল ছাড়তে না পারে। এরপরেই বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, ‘এ ধরণের যত প্রতিহিংসাপরায়ণ রাজনৈতিক মিথ্যে মামলা আছে, তা যে দলেরই হোক, তাঁদের আমরা মুক্তি দেব।’

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, মিথ্যে মামলার অরবিটে তৃণমূল কর্মীদের একাংশকে টেনে এনে কৌশলে তৃণমূলের মধ্যে অসন্তোষ উসকে দিতে চাইলেন দিলীপ ঘোষ। তাতে কাজ হবে কি? বড়ো প্রশ্ন এটাই। পাশাপাশি রাজ্যের আইন শৃঙ্খলা নিয়েও যথারীতি তোপ দাগেন দিলীপ ঘোষ। বলেন, পুজোর মধ্যেও ইচ্ছে করে খুনখারাপি চালানো হচ্ছে। প্রশাসনের উপর নিয়ন্ত্রণ নেই সরকারের। সমাজবিরোধীরা বাংলায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে।

Comments
Loading...