কৃষক মৃত্যুতে প্রথম স্থানে রয়েছে বিজেপি শাসিত মহারাষ্ট্র, দ্বিতীয় কর্ণাটক, তৃতীয় মধ্যপ্রদেশ। দীর্ঘ তিন বছর পর ভারতে কৃষক মৃত্যু নিয়ে তথ্য দিল কেন্দ্রীয় সরকার।
শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর (এনসিআরবি) দুর্ঘটনা ও আত্মহত্যা সংক্রান্ত রিপোর্ট প্রকাশ করেছে। এই রিপোর্ট শেষ প্রকাশিত হয় ২০১৫ সালে। সাড়ে চার বছর পর প্রকাশিত এই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, ২০১৬ সালে দেশে মোট ১১ হাজার ৩৭৯ জন কৃষক আত্মহত্যা করেছেন। পরিসংখ্যান বলছে, প্রতি মাসে ৯৪৮ জন এবং দিনে ৩১ জন কৃষক আত্মঘাতী হয়েছেন।
আগের দু’বছরের মতোই ২০১৬ সালেও কৃষক আত্মহত্যায় শীর্ষে রয়েছে মহারাষ্ট্র। ২০১৬ সালে সে রাজ্যে কৃষক মৃত্যুর সংখ্যা ৩ হাজার ৬৬১ জন। ২০১৪ ও ২০১৫ সালেও কৃষক মৃত্যুর পরিসংখ্যানে শীর্ষে ছিল মহারাষ্ট্র। তবে এনসিআরবির তরফে কৃষক আত্মহত্যার কারণ নিয়ে কোনও তথ্য দেওয়া হয়নি। অন্যদিকে এক আরটিআই-এর উত্তরে জানা গিয়েছিল, ২০১৩ সাল থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে মহারাষ্ট্রে কৃষক আত্মহত্যার সংখ্যা ১৫ হাজার ৩৫৬ জন।
কৃষক মৃত্যুর সংখ্যায় মহারাষ্ট্রের পরেই রয়েছে আর এক বিজেপি শাসিত রাজ্য কর্ণাটক। কেন্দ্রীয় তথ্য বলছে, ২০১৪ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত প্রতি বছর নাগাড়ে কৃষক মৃত্যু বেড়েছে কর্ণাটকে। ২০১৪ সালে সেখানে কৃষক মৃত্যুর সংখ্যা ছিল ৭৬৮। সেখান থেকে ২০১৬ সালে হয়েছে ২ হাজার ৭৯। এই পরিসংখ্যানে তৃতীয় স্থানে রয়েছে মধ্যপ্রদেশ। ২০১৬ সালে তৎকালীন বিজেপি শাসিত মধ্যপ্রদেশে ১ হাজার ৩২১ জন কৃষকের মৃত্যু হয়।
অন্যদিকে, তেলেঙ্গানায় লক্ষ্যণীয় হারে কৃষক মৃত্যু কমেছে। এনসিআরবি-র রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০১৪ ও ২০১৫ সালে টিআরএস শাসিত তেলেঙ্গানায় কৃষক মৃত্যুর সংখ্যা ছিল যথাক্রমে ১ হাজার ৩৪৭ এবং ১ হাজার ৪০০ জন। আর ২০১৬ সালে ৬৪৫ জন কৃষকের মৃত্যু হয়েছে কেসিআরের রাজ্যে।
অন্যদিকে, ২০১৫ সালের মতো ২০১৬ সালেও এনসিআরবি-কে দেওয়া তথ্যে পশ্চিমবঙ্গ সরকার জানিয়েছে, এ রাজ্যে কৃষক মৃত্যুর সংখ্যা শূন্য। ২০১৪ সালে বাংলায় কৃষক আত্মহত্যার সংখ্যা ছিল ২৩০। ২০১৬ সালে বিহারেও কোনও কৃষক আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেনি বলে কেন্দ্রকে জানানো হয়েছে।
১৯৯৫ সাল থেকে কৃষক আত্মহত্যা নিয়ে তথ্য প্রকাশ শুরু করে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরো। কেন্দ্রীয় তথ্য অনুযায়ী, ১৯৯৫ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত দেশে কৃষক আত্মহত্যার সংখ্যা ৩ লক্ষ ৩৩ হাজার ৪০৭ জন।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Subscribe

You may also like