তারুণ্যে ভরপুর এ ভারতকে ভাঙা যায় না, বিদেশি সাংবাদিকের ট্যুইটের সপাট জবাব হর্ষ ভোগলের

ভারত ভেঙে যায়নি। ক্রিকেট ধারাভাষ্যকার ও বিশেষজ্ঞ হর্ষ ভোগলেকে উল্লেখ করে অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিকের ট্যুইটের কড়া জবাব দিলেন তিনি (Harsha Bhogle)। জানালেন, ভারতবর্ষ একটা সক্রিয় ও পরিণত গণতন্ত্রের দেশ। একে ভাঙা যায় না।
ঘটনার সূত্রপাত কয়েক দিন আগে। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসি-র বিরুদ্ধে সারা দেশে প্রতিবাদ-আন্দোলনের আবহে সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেছিলেন হর্ষ ভোগলে। সেখানে তিনি মোদী সরকারের বিরোধিতা করে ছাত্র আন্দোলনের পক্ষ নেন। লিখেছিলেন, বিভেদগুলোকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে আমরা সঙ্কীর্ণ করছি নিজের দেশকে। এই পোস্টের পরিপ্রেক্ষিতে ডেনিস অ্যান্ডারসন নামে এক অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিক একটি ট্যুইট করেন। তাতে তিনি হর্ষ-কে উল্লেখ করে লেখেন, তাঁর ভারত ভেঙে গিয়েছে। বিশ্বে আর কোনও দেশের শাসক দল ও তার নেতাকে নাৎসিদের সঙ্গে ধারাবাহিকভাবে তুলনা করা হয়নি। এই সময়ে আমাদের সবারই হর্ষের (Harsha Bhogle) মতো হয়ে ওঠা উচিত।
এই ট্যুইটটি চোখ এড়ায়নি হর্ষ ভোগলের। প্রতিক্রিয়া দিতেও তিনি দেরি করেননি। তিনি অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিকের ওই ট্যুইট ট্যাগ করে লেখেন, না ডেনিস, আমার ভারত ভেঙে যায়নি। আমার দেশ উদ্দীপ্ত তরুণ ও তরুণীতে পরিপূর্ণ, তাঁরা অনেক ভালো কাজ করছেন। আমরা একটা পুরোপুরি সক্রিয় এবং পরিণত গণতন্ত্র। সেখানে কখনও ক্ষোভ, হতাশা প্রকাশ করতে পারি। কিন্তু আমরা দারুণভাবে ভারতীয়। যে শব্দের সঙ্গে আপনি ভারতকে তুলনা করছেন তা কখনওই আমার দেশ নয়।

কয়েকদিন আগে ফেসবুকে ভোগলে লিখেছিলেন, বিভেদগুলোকে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে আমরা সঙ্কীর্ণ করছি নিজের দেশকে। এতে নতুন ভারত মোটেই খুশি নয়। তিনি প্রশ্ন তোলেন, এত ভয়ের পরিবেশ তৈরি করা হচ্ছে কেন? কেন বাধা দেওয়া হচ্ছে সমাজের পথে? কেন বাধা দেওয়া হচ্ছে নতুন প্রজন্মকে?
সোশ্যাল মিডিয়ায় ভোগলের এই ট্যুইটে তাঁর উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করছেন নেটিজেনরা। তাঁদের মন্তব্য, দেশের অভ্যন্তরীণ ক্ষোভ-বিক্ষোভ থাকতেই পারে। কিন্তু তার সুযোগ নিয়ে কেউ বাইরের দেশের কাছে ভারতের ভাবমূর্তি নষ্ট করবেন, এটা কোনও ভারতীয়ই মেনে নেবে না।

Comments
Loading...