জেএনইউ হামলার নিন্দা করে বিবৃতি আইআইটি খড়গপুরের, দিল্লি পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন

আইআইটি বম্বে, কানপুরের পর জেএনইউ-তে ছাত্রদের উপর আক্রমণের তীব্র নিন্দা করে বিবৃতি দিল আইআইটি খড়গপুরও। সেখানকার আইআইটি-র রিসার্চ স্কলারস কাউন্সিলের তরফে বিবৃতিতে গত রবিবার জেএনইউ হামলায় পুলিশের ভূমিকার কড়া সমালোচনা করা হয়েছে। এই হামলাকে নজিরবিহীন হিংসা ও সন্ত্রাস বলে বর্ণনা করেছেন আইআইটি খড়গপুরের গবেষণার পড়ুয়ারা।
ওই বিবৃতিতে বলা হয়, মুখ ঢাকা ওই আক্রমণকারীরা, যাদের মধ্যে মহিলাও আছে, ভয়াবহ বর্বরতার প্রমাণ দিয়েছে। সভ্য সমাজে তাও আবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এই ধরনের ‘সন্ত্রাসবাদী’ আক্রমণের কোনও জায়গা নেই। বিভিন্ন আন্দোলনে অংশ নেওয়ায় আমাদের উপরও এই ধরনের ‘সন্ত্রাস’ চলেছে। তাই জেএনইউ হামলার পর পড়ুয়ারা কী অবস্থায় আছেন তা উপলব্ধি করতে পারছি। দিল্লি পুলিশের কড়া নিন্দা করে ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে, জেএনইউ-তে আক্রমণকারীদের পুলিশই রক্ষা করেছে। বিনা প্ররোচনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতর ঢুকে পড়ুয়াদের পিটিয়ে শিক্ষাঙ্গনকে যুদ্ধক্ষেত্রে পরিণত করে এই পুলিশ। তারাই আবার নাকি রবিবার আক্রমণের সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাইরে দাঁড়িয়ে অনুমতির অপেক্ষা করছিল!
পড়ুয়া, গবেষকদের এই বিবৃতিতে লেখা হয়, শিক্ষাক্ষেত্রে এই রকম গুন্ডামি কোনওভাবেই বরদাস্ত করা যায় না। আমাদের ভুলে গেলে চলবে না শিক্ষার আসল উদ্দেশ্য কী। ঘৃণা ও হিংসা ছড়ানো নয়, ভালবাসা ও সহানুভূতিই মানবতার আদর্শ। এটাই শিক্ষার উদ্দেশ্য।
গবেষকদের এই বিবৃতির সঙ্গে আইআইটি খড়গপুরের ক্যুইজ ক্লাব জেএনইউ হামলার তীব্র নিন্দা করেছে।

Comments
Loading...