দেশে ৩ ব্যক্তির বছরে রোজগার ৫০০ কোটির বেশি, তার মধ্যে নেই মুকেশ আম্বানী!

গত বছরে ৩ ভারতীয়র বাৎসরিক রোজগার ছাড়িয়েছে ৫০০ কোটি টাকা! আরও আশ্চর্যের বিষয়, বছরে সবচেয়ে বেশি রোজগার করা এই প্রথম তিন ব্যক্তির মধ্যে নাম নেই দেশের ধনীতম ব্যক্তি মুকেশ আম্বানীর! ১৬ ই অক্টোবর ইংরেজি নিউজ পোর্টাল scroll.in-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই ৩ ধনী ব্যক্তির মধ্যে কোনও পরিচিত শিল্পপতি বা বিনোদন জগতের কোনও ব্যক্তিত্ব নেই।
নির্দিষ্ট কয়েকজন ব্যক্তি এবং গোষ্ঠীর হাতে দেশের অধিকাংশ সম্পদ গচ্ছিত থাকার প্রবণতা বাড়ছে। কিছুদিন আগেই প্রকাশিত হুরান রিচ লিস্টেও দেখা গিয়েছিল, ভারতের প্রথম ২৫ জন ধনকুবেরের মিলিত সম্পত্তির পরিমাণ দেশের জিডিপির ১০ শতাংশ। এদিকে সদ্য প্রকাশিত হাঙ্গার ইনডেক্সে দেখা গিয়েছে, দেশে আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে ক্ষুধাও।
scroll.in এর সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদন অনুযায়ী, কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রকের তথ্য জানাচ্ছে, ২০১৮-১৯ আর্থিক বছরে দেশের ৫.৬ মিলিয়ন বা ৫৬ লক্ষ মানুষের বার্ষিক আয় ১০ লক্ষ টাকার উপরে। যার মধ্যে ১ লক্ষ মানুষের বার্ষিক আয় প্রায় ১ কোটি টাকা বা তার বেশি। এই তালিকায় যত ওপরের দিকে ওঠা যায় তত স্পষ্ট হয়, কীভাবে দেশের কতিপয় মানুষের হাতে বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি গচ্ছিত রয়েছে। কেন্দ্রীয় তথ্য বলছে, মাত্র ৭৭ জন ব্যক্তি ১০০ কোটি টাকা আয় বাড়িয়েছেন ১ বছরে। এঁদের মধ্যে মাত্র ৩ জন ব্যক্তির রোজগার বছরে ৫০০ কোটি টাকা বা ৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ছাড়িয়ে গিয়েছে।
যেখানে গত ১ বছরে ২০৫ জন আমেরিকানের আয় ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার, সেখানে ভারতের মতো বৃহত্তম উন্নয়নশীল অর্থনীতির দেশে ৩ ব্যক্তি গত ১ বছরে আয় করেছেন ৭০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার! উল্লেখ্য, আমেরিকার মাথাপিছু আয় ভারতের চেয়ে প্রায় ৩০ গুন বেশি।
কিন্তু এই ৩ ধনী ব্যক্তি কারা সেটাই আরও রহস্যের। যেখানে দেশের ধনীতম ব্যক্তি, রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর মুকেশ আম্বানী গত ১১ বছর ধরে তাঁর বার্ষিক বেতন ১৫ কোটি টাকা করে রেখেছেন, সেখানে ভারতের ৩ জন ধনীর ১ বছরে ৫০০ কোটি টাকা আয় নিয়ে রহস্য ঘনিয়েছে। দেশের খেলোয়াড়দের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আয় করেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহালি। তাঁর বার্ষিক আয়ও ২০০ কোটি টাকার মধ্যে। বলিউড অভিনেতা অক্ষয় কুমারের আয়ও ৪৬২ কোটি টাকায় গিয়ে আটকেছে। কিন্তু ৫০০ কোটি ছাড়িয়ে যাওয়া ৩ রোজগারির পরিচিতি ঘিরে রহস্য দানা বেঁধেছে। পাশাপাশি, যেখানে কতিপয় মানুষের হাতে বিপুল সম্পত্তির খবর পাওয়া যাচ্ছে, সেখানে যাঁরা আয়কর দফতরে রোজগারের হিসেব জমা করেছেন, তার মধ্যে ১ কোটি ৪০ লক্ষ মানুষের বার্ষিক আয় আড়াই লক্ষ থেকে ৩ লক্ষ টাকা।

Comments
Loading...