উত্তপ্ত লাদাখে ২০ ভারতীয় সেনার মৃত্যু, হতাহত ৪৩ চিনা সেনা, জানাল এএনআই, নিজেদের এলাকায় দখলদারি বরদাস্ত নয়, কঠোর ভারত

লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় চিনের সেনা অগ্রাসনে মৃত্যু হয়েছে ২০ ভারতীয় সেনার। এই প্রেক্ষিতে চিন সীমান্ত লাগোয়া সমস্ত রাজ্যে হাই অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। মঙ্গলবার রাতেই লাদাখ পরিস্থিতি নিয়ে বৈঠক হয় নিরাপত্তা বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটির। নিজেদের এলাকায় কোনওরকম দখলদারি মানবে না ভারত, এটাই দিল্লির অবস্থান। সেই অনুযায়ী পরিস্থিতি বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সম্পূর্ণ স্বাধীনতা তুলে দেওয়া হয়েছে সেনার হাতে। অ্যালার্ট করা হয়েছে ইন্দো টিবেটান বর্ডার পুলিশ বা আইটিবিপিকেও। গোটা পরিস্থিতির উপর নজর রাখছে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।
সূত্রের খবর, সোমবার রাতে গালওয়ান ভ্যালির লাইন অফ অ্যাকচুয়াল কন্ট্রোলে ভারত-চিন সীমান্ত বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয় একটি নির্দিষ্ট সময় পর পিছিয়ে যাবে চিনের সেনা। এক ঘণ্টা পর ৫০-৬০ জন ভারতীয় সেনাকে নিয়ে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে বেরোন কর্নেল সন্তোষ বাবু। সেই সময় চিনা সেনার তৈরি করা তাবু ভাঙতে ভাঙতে এগোতে থাকেন তাঁরা। ভাঙা পড়ে চিনা সেনার একটি নজরদারি পোস্টও। জানা গিয়েছে, তারপরই প্রায় ২৫০ চিনা সেনা ভারতীয় সেনার উপর হামলা চালায়। দু’পক্ষে শুরু হয়ে যায় তুমুল হাতাহাতি। এই সংঘর্ষে কর্নেল সন্তোষ বাবু সহ ২০ জন সেনার মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় সেনা। সংবাদসংস্থা এএনআইয়ের তরফে পাওয়া খবর অনুযায়ী, ভারতীয় সেনার হিসেব মতো ৪৩ জন চিনা সেনা হতাহত হয়েছেন।
মঙ্গলবার বেলার দিকে প্রথমবার সেনার তরফে এই ঘটনার কথা জানানো হয়। বলা হয় কর্নেল সন্তোষ বাবু, হাবিলদার কে পাঝানি এবং কুন্দন ওঝার মৃত্যু হয়েছে। রাতে ভারতীয় সেনা বিবৃতিতে জানায়, গুরুতর আহত আরও ১৭ জন ভারতীয় সেনাকর্মী প্রবল ঠান্ডার কারণে মারা গিয়েছেন।

Comments
Loading...