পতনের মুখে মধ্যপ্রদেশে কমলনাথ সরকার, কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, অমিত শাহের সঙ্গে গেলেন প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন

পতনের মুখে দাঁড়িয়ে মধ্যপ্রদেশের কমলনাথ সরকার। সভাপতি নিয়ে জলঘোলার মাঝেই এবার বড় ধাক্কা কংগ্রেস শিবিরে। সূত্রের খবর, মধ্যপ্রদেশ থেকে মাধবরাও সিন্ধিয়া পুত্রকে রাজ্যসভায় পাঠাচ্ছে বিজেপি। জ্যোতিরাদিত্যের সঙ্গেই কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যেতে পারেন আরও অন্তত ১৯ বিধায়ক। শোনা যাচ্ছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিত্বেরও দাবি জানিয়েছেন কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিতে চলা জ্যোতিরাদিত্য।
মঙ্গলবার সকালে দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে যান একদা রাহুল গান্ধী-প্রিয়াঙ্কা বঢরার অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ বলে পরিচিত জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তাঁর সঙ্গে ছিলেন খোদ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।
কয়েকদিন ধরেই মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কমলনাথ অভিযোগ করে আসছেন কংগ্রেস নেতাদের ভাঙাচ্ছে বিজেপি, ফের গেরুয়া শিবিরের বিরুদ্ধে ঘোড়া কেনাবেচার অভিযোগ করেন তিনি। এর মধ্যে মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিংহ জানান, অনেক চেষ্টা করেও তাঁরা সিন্ধিয়াজির (জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া) সঙ্গে কোনওভাবে যোগাযোগ করতে পারছেন না। প্রথমে জানানো হয় কংগ্রেস নেতা সিন্ধিয়া না কী সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত। তাই তাঁর সঙ্গে কথা বলা যাবে না।
এদিকে মঙ্গলবার খোদ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের জন্য তাঁর দিল্লির বাসভবনে উপস্থিত হন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। এদিনই তাঁর বিজেপিতে যোগদান করা প্রায় পাকা বলে সূত্রের খবর। ফলতঃ মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকার ভাঙনের মুখে। কারণ, কমলনাথ সরকারের অন্তত ১৯ জন বিধায়ক সিন্ধিয়ার হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন বলে খবর। বর্তমানে মধ্যপ্রদেশের ২৩০ বিধানসভা আসনে ১২০ জন বিধায়ক রয়েছে কংগ্রেস সরকারের পক্ষে। যার মধ্যে ১১৪ জন কংগ্রেসের, দু’জন বসপা’র এবং একজন বিধায়ক সমাজবাদী পার্টির। বিজেপির হাতে রয়েছে ১০৭ জন বিধায়ক এবং দুটি আসন এখন ফাঁকা রয়েছে। ১৭ জন বিধায়ক তাঁদের পদত্যাগ পাঠালে কর্ণাটকের পর মধ্যপ্রদেশেও পড়তে চলেছে কংগ্রেস সরকার।

Comments
Loading...