অতি বৃষ্টি ও বন্যায় বিধ্বস্ত কেরল, দেখুন উদ্ধার কার্যের ভিডিও

বিগত এক শতাব্দীর মধ্যে ভয়ঙ্করতম বন্যায় বিপর্যস্ত কেরলকে বিপর্যয় মোকাবিলায় আপৎকালীন ভিত্তিতে অতিরিক্ত ৫০০ কোটি টাকা সাহায্যের ঘোষণা করল কেন্দ্র। শনিবার সকালে বায়ুসেনার বিশেষ হেলিকপ্টারে চড়ে কেরলের বন্যা দুর্গত বেশ কিছু জেলা পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর সঙ্গে ছিলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। এরপর মুখ্যমন্ত্রীসহ প্রশাসন এবং উদ্ধারকারী দলগুলির শীর্ষ আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী। বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রী, কেরলকে এই বিপর্যয় মোকাবিলায় অতিরিক্ত ৫০০ কোটি টাকা সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন। যদিও রাজ্যের তরফে কেন্দ্রের কাছে দ্রুত ২০০০ কোটি টাকা সাহায্যের আবেদন জানানো হয়েছিল।

বন্যায় কেরলে ক্ষতির পরিমাণ ইতিমধ্যেই ১৯ হাজার কোটি টাকা ছাড়িয়েছে বলে প্রশাসন জানিয়েছে। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে ৩৩০০ হেক্টরেরও বেশি কৃষিজমি। শুধুমাত্র কৃষিতেই ক্ষতির পরিমাণ ছাড়িয়েছে ৮০০ কোটি টাকা। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন ২ লাখ কৃষক। রাজ্যজুড়ে প্রায় ৭০ হাজার কিলোমিটার রাস্তা ক্ষতিগ্রস্থ, ভেঙেছে ৫০ হাজারেরও বেশি বাড়ি-ঘর, ২৫০ টিরও বেশি ধস নেমেছে। প্রায় ১ লক্ষ মানুষকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে, ২ হাজারেরও বেশি ত্রাণ শিবিরে রয়েছেন প্রায় দেড় লক্ষ মানুষ। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, মৃতের সংখ্যা ৩৫০ ছাড়িয়েছে। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী কেরলের এই বিপর্যয়কে জাতীয় বিপর্যয় ঘোষণার দাবি জানিয়েছেন।

এদিকে শনিবার দুপুর পর্যন্ত কেরলে উদ্ধার কার্যে হাত লাগিয়েছে এনডিআরএফ-এর ৫৯ টি দল। ৪৩৫ টি উদ্ধারকারী বোট নামানো রাজ্যজুড়ে। পাশাপাশি উদ্ধার উদ্ধার কার্যে নামানো হয়েছে র‍্যাফ, বিএসএফ ও সিআইএসএফ জওয়ানদেরও। উদ্ধার কার্যে ব্যবহার করা হচ্ছে ৩৮টি হেলিকপ্টার। ত্রাণ সামগ্রী বিলি করার কাজে আরও অতিরিক্ত ২০ টি হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হচ্ছে। নামানো হয়েছে ১০ কলম সেনা ও সেনা ইঞ্জিনিয়ারদের ১০ টি টিম। ভারতী নৌ সেনার ৮২ টি ও কোস্ট গার্ডের ৪২ টি টিম কাজ করছে কেরলে।

Comments
Loading...