ইস্টবেঙ্গল ম্যাচ পরিত্যক্ত, তাই জিতেও চাম্পিয়ন ঘোষিত হল না পিয়ারলেস

জর্জ টেলিগ্রাফ এর বিরুদ্ধে দুরন্ত জয়। পিয়ারলেস জিতল ২-০ গোলে। জোড়া গোল করলেন ক্রোমা। হিসাব মত এই জয়ের পরেই তো ইতিহাস ছুঁয়ে ফেলার কথা পিয়ারলেসের! ৬১ বছর পর ছোট দল হিসাবে লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার কথা। কিন্তু সবকিছু করেও রবিবার চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা হলো না পিয়ারলেস। কারণ ইস্টবেঙ্গল-কাস্টমস ম্যাচটি ভেস্তে গেল। সকাল থেকে প্রবল বৃষ্টি এবং গঙ্গার বানের জল ঢুকে ইস্টবেঙ্গল মাঠের কর্ণার ফ্ল্যাগের দিকে জল জমে যায়। দুপুর আড়াইটা থেকে ম্যাচ শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সেই ম্যাচ শুরু হয়নি। টানা ১ ঘন্টা ২৫ মিনিট অপেক্ষা করার পর, ম্যাচটি বাতিল বলে ঘোষণা করা হয়। কারণ জমে থাকা জল পরে আর নামেনি।

অন্য ম্যাচে মোহনবাগান ৩-০ গোলে জিতল কালিঘাট এম এস এর বিরুদ্ধে।
একই সময়ে তিনটি ম্যাচ শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ইস্টবেঙ্গল মাঠে খেলা শুরু করা যায়নি। উৎসাহী সর্মথকরা বারবার খোঁজ নিচ্ছিলেন বারাসাতের পিয়ারলেস ম্যাচের। ৩৭ মিনিটে ক্রোমার গোলে পিয়ারলেস এগিয়ে যেতেই নিস্তব্ধতা নেমে আসে ইস্টবেঙ্গল গ্যালারিতে। খবর ছড়িয়ে পড়ে মুহূর্তে। দ্বিতীয়ার্ধের ৫১ মিনিটে দুরন্ত হাফ ভলিতে পিয়ারলেসকে ২-০ গোলে এগিয়ে দেন সেই ক্রোমা। সব আশা শেষ হয়ে যায় ইস্টবেঙ্গলের। এই জয়ের ফলে ১১ ম্যাচে ২৩ পয়েন্টে পৌঁছালো পিয়ারলেস। তাদের গোল পার্থক্য ১৩।
আইএফএ সূত্রের খবর ইস্টবেঙ্গলের বাতিল হয়ে যাওয়া ম্যাচটি হওয়ার সম্ভাবনা চতুর্থীর দিন, ২রা অক্টোবর। ম্যাচটি হবে কল্যাণী স্টেডিয়ামে। এই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে সোমবার।
তবে হিসাব যা বলছে, ইস্টবেঙ্গল কে চ্যাম্পিয়ন হতে গেলে সেই ম্যাচে ৭ গোলে জিততে হবে। যা কার্যত অসম্ভব।
অন্যদিকে মোহনবাগান কালিঘাটকে হারালো ৩-০ গোলে। গোল করলেন সালভা, ফৈয়াজ, মোরানতে। ১১ ম্যাচে ২০ পয়েন্টে শেষ করলো মোহনবাগান।
পরিস্থিতি যা পিয়ারলেসের চ্যাম্পিয়ন হওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা।

Comments
Loading...