বিরাট জয় বাম-দলিত ছাত্র জোটের, রোহিত ভেমুলার হায়দরাবাদ ইউনিভার্সিটিতে পর্যুদস্ত এবিভিপি

এবিভিপিকে হারিয়ে ইউনিভার্সিটি অফ হায়দরাবাদের ছাত্র সংগঠনের দখল নিল স্টুডেন্টস ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া (এসএফআই), আম্বেদকর স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন (এএসএ), দলিত স্টুডেন্টস ইউনিয়ন (ডিএসইউ) এবং ট্রাইবাল স্টুডেন্টস ফোরামের (টিএসএফ) জোট।
রাজনৈতিক সক্রিয়তার কারণে জেএনইউর মতোই সমান পরিচিত হায়দরাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়। ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের দলিত ছাত্র রোহিত ভেমুলার আত্মহত্যা ঘিরে তোলপাড় হয়ে গিয়েছিল দেশ। কিন্তু গত বছর ইউনিভার্সিটি অফ হায়দরাবাদের ছাত্র সংগঠনের ভোটে তার কোনও প্রভাব পড়েনি। ৮ বছর পর সেখানে এবিভিপি জয়লাভ করে। কিন্তু এবার বিজেপির ছাত্র সংগঠনকে ঠেকাতে মরিয়া ছিল বাম ও দলিত ছাত্র সংগঠনগুলো। এই লক্ষ্যে এবার হাত মেলায় এসএফআই ও এএসএ। ফলও মিলেছে হাতেনাতে। সভাপতি, সহ সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক এবং যুগ্ম সম্পাদক সহ সবকটি গুরুত্বপূর্ণ পদে বাম জোটের প্রার্থীরা বিপুল ভোটে জিতেছেন।
সভাপতির পদে ২,২০৫ ভোট পেয়ে জয়লাভ করেছেন এসএফআইয়ের অভিষেক নন্দন। ১,৮৪৩ ভোট পেয়ে সহ সভাপতির পদে নির্বাচিত হয়েছেন দলিত ছাত্র সংগঠন (ডিএসইউ) প্রার্থী এম শ্রী চরণ। সাধারণ সম্পাদকের পদে জয়ী হয়েছেন এএসএয়ের গোপি স্বামী। তাঁর প্রাপ্ত ভোট ২,৩০৯। এছাড়া, সহ সম্পাদকের পদে নির্বাচিত হয়েছেন টিএসএফ প্রার্থী রাথোড় প্রদীপ, ক্রীড়া সম্পাদকের পদ দখল করেছেন এসএফআইয়ের সোহেল আহমেদ এবং সংস্কৃতি সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন প্রিয়াঙ্কা বাদরাশেট্টি।
এইবছর ইউনিভার্সিটি অফ হায়দরাবাদের প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল এএসএ-ডিএসইউ-টিএসএফ জোট বনাম এবিভিপি-ওবিসিএফ-এসএলভিডি। গত ২৬ শে সেপ্টেম্বর ভোট হয়। ভোটদান করেন ৪২০০ জন পড়ুয়া। শুক্রবারই ভোটের ফল প্রকাশ হয়।

Comments
Loading...