বিহারে বাম-উদয়! চিনে নিন সিপিআইএমএল লিবারেশন-সিপিআই-সিপিএমের জয়ী ১৬ জনকে, কোন আসনে কত ভোটে জয়ী বামেরা

বিহারে ক্ষমতা ধরে রেখেছে এনডিএ। কিন্তু দুর্দান্ত ফল করে তাক লাগিয়ে দিয়েছে মহাজোটের অন্যতম বামেরা। বিহারে মোট ২৯ টি আসনে লড়ে সিপিআই, সিপিএম ও সিপিআইএমএল লিবারেশন জয় পেয়েছে ১৬ টি আসনে। অর্থাৎ, স্ট্রাইক রেট ৫৫ শতাংশ। আসুন দেখে নেওয়া যাক, বিহারে কোন অংশে ভালো ফল করল বামেরা, প্রার্থী ছিলেন কারা?

বাংলায় সংসদীয় বামদলগুলোর মধ্যে বড়ো শরিক সিপিএম। কিন্তু প্রতিবেশী বিহারে বামেদের সবচেয়ে বড়ো দল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করেছে সিপিআইএমএল লিবারেশন। বিহারের বৃহত্তম বামদলের জয়ী প্রার্থীদের চিনুন।

বিহারের ভোজপুর জেলার আগইওয়াও বিধানসভা কেন্দ্রে জিতেছেন তরুণ বাম নেতা মনোজ মনজিল। তিনি হারিয়েছেন জেডিইউ প্রার্থীকে। জয়ের ব্যবধান প্রায় ৪৯ হাজার।

দুমরাও কেন্দ্রে মহাজোট প্রার্থী হিসেবে জয়লাভ করেছেন লিবারেশনের আর এক ছাত্র নেতা অজিতকুমার সিংহ। জয়ের ব্যবধান প্রায় ২৪ হাজার।

জেএনইউ ছাত্র সংসদের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট সন্দীপ সৌরভ ৩০,৯১৫ ভোটে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বিকে পরাস্ত করেছেন।

ঘোশি কেন্দ্রে জিতেছেন লিবারেশনের রামবলী সিংহ যাদব।

সিকটা কেন্দ্রে ২,৩০২ ভোটে জিতেছেন লিবারেশনের বর্ষীয়ান নেতা বীরেন্দ্র প্রসাদ গুপ্তা।

কারাকাটে জয় পেয়েছেন অরুণ সিংহ।

দারাউলিতে ১২,১১৯ ভোটে জিতেছেন সত্যদেব রাম। তারারি কেন্দ্রে ১১ হাজারেরও বেশি ভোটে জিতেছেন সুদামা প্রসাদ।

প্রায় ২০ হাজার ভোটে অরওয়াল কেন্দ্র ছিনিয়ে নিয়েছেন লিবারেশন প্রার্থী মহানন্দ প্রসাদ। ফুলওয়াড়ি জিতেছেন গোপাল রবিদাস।

বলরামপুরে ৫৩,৫৯৭ ভোটে প্রতিপক্ষকে উড়িয়ে দিয়েছেন মেহবুব আলম।

জিরাদেই কেন্দ্রে ২৫,৫১০ ভোটে জয় পেয়েছেন অমরজিৎ কুশবাহা।

এখনও পর্যন্ত এই ১২ টি আসনে জয় পেয়ে গেছেন সিপিআইএমএল লিবারেশন প্রার্থীরা।

 

এবার দেখে নেওয়া যাক কেমন ফল করল সিপিএম-সিপিআই

 

বিহারের সমস্তিপুরের বিভূতিপুর কেন্দ্রে সিপিএমের অজয় কুমার জেডিইউ প্রার্থীকে ৪১ হাজারেরও বেশি ভোটে হারিয়েছেন।

মানঝি কেন্দ্রে ১৫ হাজার ভোটের ব্যবধানে জয়ী সিপিএমের সত্যেন্দ্র যাদব।

 

অন্যদিকে সিপিআইয়ের ফলও নজরকাড়া। বখরি কেন্দ্রে ৭৭৭ ভোটে জয়ী হয়েছেন ভারতের কমিউনিস্ট পার্টির সূর্যকান্তে পাসোয়ান। অন্যদিকে বিহারের লেনিনগ্রাদ বলে ডাকা হয় যে বেগুসরাইকে, সেখানেও লাল নিশানের তুফান। এই জেলার বছওয়াড়া কেন্দ্রে সিপিআই এগিয়ে থাকলেও শেষরক্ষা হয়নি। শেষ মুহূর্তে জয় পায় এনডিএ। কিন্তু একই জেলার তেঘড়া কেন্দ্রে ৪০ হাজারেরও বেশি ব্যবধানে বিজেপি প্রার্থীক পরাস্ত করেছেন সিপিআই প্রার্থী রামরতন সিংহ।

 

বিহারের নির্বাচনে যেভাবে বামেরা নিজেদের প্রাসঙ্গিক করে তুলেছে তাতে আশার আলো দেখছেন অনেকেই। যেখানে অন্তত ৩০ টি আসনে জয়-পরাজয়ের ব্যবধান পাঁচশো থেকে ১ হাজার ভোট, সেখানে বিপুল ব্যবধানে বামপন্থীদের জয়কে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। এবার পুরনো ভোটভিত্তিকে আরও বৃদ্ধি করাই লক্ষ্য বিহারের লাল পতাকার।

Comments
Loading...