Mamata: ২৯৪ এর মধ্যে ৭০ টাও পাবে না BJP

রবীন্দ্রনাথের মতো দাঁড়ি রাখলেই হয় না, রবীন্দ্রনাথকে জানতেও হয়

করোনা আবহে লম্বা সাদা দাঁড়িতেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দেখে অভ্যস্ত দেশবাসী। তা নিয়ে ঠাট্টা-ইয়ার্কিও হয়েছে বিস্তর। এবার মোদীর দাঁড়িকে বিঁধলেন মমতা। তীব্র কটাক্ষ ছুঁড়ে দিয়ে বললেন, রবীন্দ্রনাথের মতো দাঁড়ি রাখলেই হয় না, রবীন্দ্রনাথকে জানতেও হয়। পাশাপাশি তৃণমূল নেত্রীর ঘোষণা, ২৯৪ এর মধ্যে বিজেপি ৭০ টা আসনও পাবে না। 

এখানেই শেষ নয়, মহুয়া মৈত্রের এলাকায় প্রচারে গিয়ে মমতার মুখে উঠে আসে বিজেপির বিরুদ্ধে ভেদাভেদের রাজনীতি করার অভিযোগ। তৃণমূল নেত্রী বলেন, আমাকে যখন পদবী জিজ্ঞেস করা হয় আমার লজ্জা লাগে। কারণ আমি পদবী নিয়ে ভাগাভাগি পছন্দ করি না। তারপর মমতা ব্যানার্জি বলেন, এতদিন বাংলায় কাজ করার পর, এত সংগ্রাম করার পর আপনারা বলুন তো আমার পরিচয় কী? আমি হিন্দু না মুসলিম না তফসিলি না আদিবাসী? আমার খুব লজ্জা হয়। 

উত্তরবঙ্গ থেকে ফিরে নদিয়ার কল্যাণী ও হরিণঘাটার প্রার্থীর সমর্থনে সভা করেন মমতা। সেই সভা থেকে বিজেপিকে সাম্প্রদায়িক এবং বকধার্মিক বলে আক্রমণ করেন তৃণমূল নেত্রী। বলেন, গেরুয়া হল ত্যাগের রং। কিন্তু বিজেপি নেতারা গেরুয়ার অর্থ করে দিয়েছেন স্বার্থপর। মমতার অভিযোগ, বিজেপি নেতারা মানুষে মানুষে ভেদাভেদ তৈরি করে ভোট লুট করতে চায়। আপনারা কি বিজেপিকে আপনাদের ভোট লুট করতে দিতে চান? সমস্বরে জনতার উত্তর আসে, না। 

মমতার প্রশ্ন, অন্যান্যবার নরেন্দ্র মোদী আমাকে নিয়ে বাংলাদেশ জেতেন। তাতে শেখ হাসিনা খুশি হতেন। কই এবার তো আপনার আমার কোথা মনে পড়ল না। আপনি নিয়ে গেলেন আপনার পার্টির একজনকে। তারপরই মমতার প্রশ্ন, এরপর আপনি কী করে বলবেন বাংলাদেশে রাজনীতি করতে যাননি? মতুয়া সমাজের জন্য তৃণমূল সরকার কী কী করেছে তার খতিয়ান পেশ করেন মমতা।

শীতলকুচি নিয়ে বিজেপি নেতাদের মন্তব্যের প্রেক্ষিতে মমতা ব্যানার্জির প্রশ্ন, যে নেতা বলতে পারে ৮ জনকে মেরে দাও, তাঁর কি রাজনীতি করার অধিকার আছে? তৃণমূল নেত্রীর কথায়, কাদের পাল্লায় পড়েছি রে ভাই!  

Comments
Loading...