মমতা: উন্নয়নকে হাতিয়ার করে ঝাঁপিয়ে পড়ুন ভোটের কাজে, ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে বিজেপিকে বুঝে নেওয়ার ডাক

১ ফেব্র্রুয়ারি থেকেই কোমর বেঁধে ময়দানে নেমে পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন দলনেত্রী

আর দেরি নয়। ভোটের কাজে ঝাঁপিয়ে পড়ুন। হাতিয়ার হোক মা-মাটি-মানুষের সরকারের ধারাবাহিক উন্নয়নের কর্মসূচি। শুক্রবার কালীঘাটের বৈঠক থেকে তৃণমূল নেতৃত্বকে এই বার্তাই দিলেন মমতা ব্যানার্জি। পাশাপাশি ভোটের মুখে দলবদলুদের পাত্তা না দেওয়ার কথা ফের একবার উঠে আসে তৃণমূল নেত্রীর মুখে। সবমিলিয়ে দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে রাজনীতির ময়দানে বিজেপিকে ইঞ্চিতে ইঞ্চিতে বুঝে নেওয়ার স্পষ্ট বার্তা দিলেন মমতা। 

বৈঠকে দলের সমস্ত বিধায়ক, সাংসদকে ১ ফেব্র্রুয়ারি থেকেই কোমর বেঁধে ময়দানে নেমে পড়ার নির্দেশ দিয়েছেন দলনেত্রী। 

ইতিমধ্যেই রাজীব ব্যানার্জির মত হেভিওয়েট নেতা দলত্যাগ করেছেন। রাজীব সহ তৃণমূলের দুই বিধায়ক ও এক প্রাক্তন মেয়রের শনিবার দিল্লি গিয়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা। এমন পরিস্থিতিতে শুক্রবারের বৈঠকে দলের সমস্ত বিধায়ক ও সাংসদদের একগুচ্ছ নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। দলত্যাগীদের বিশেষ গুরুত্ব না দিয়ে আগামী ভোটের প্রস্তুতি শুরু করতে বলেন মমতা। নির্বাচনী আচরণবিধি লাগু না হওয়া পর্যন্ত মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে প্রচারের বার্তা দেন। দলের ভাবমূর্তি নষ্ট হয় এমন কোনো মন্তব্য করার ব্যাপারেও এদিন তৃণমূল নেতৃত্বকে সতর্ক করেন তিনি।  

ফেব্রুয়ারির ১ তারিখ থেকে দলকে আরও আন্দোলনমুখী করার নির্দেশ দিয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। সূত্রের খবর, বিজেপি যেখানে মিছিল-সভা-সমাবেশ করবে সেখানেই পাল্টা কর্মসূচি নিতে নির্দেশ দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী। বিজেপির তোলা অভিযোগের জবাব দেওয়া হবে উন্নয়ন দিয়ে। পাশাপাশি বিজেপিকে আক্রমণ করতে গিয়ে যাতে কেউ সীমা না ছাড়ান তাও সতর্ক করে দিয়েছেন মমতা ব্যানার্জি। সম্প্রতি জি ২৪ ঘণ্টা চ্যানেলে মদন মিত্রর মন্তব্য ভালভাবে নেয়নি দল। তাঁকে এমন মন্তব্য করতে বারণ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। 

ফেব্রুয়ারির ১ থেকে ১৫ তারিখ পর্যন্ত টানা কর্মসূচি নিয়েছে তৃণমূল। মমতার নির্দেশ নেতাদের অন্তত ১০ দিন সময় দিতে হবে। সংসদের বাজেট অধিবেশনে তৃণমূল সাংসদদের উপস্থিতি কম রেখে তাঁদের আরও বেশি করে নির্বাচনী কেন্দ্রে পড়ে থাকার নির্দেশ দিয়েছেন দলনেত্রী।

Comments
Loading...