বেআইনিভাবে সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে, অভিযোগ মেহুল চোকসির

গ্রেফতার করতে না পেরে বেআইনিভাবে তাঁর সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ। সুদূর অ্যান্টিগুয়ায় বসে এক ভিডিও বার্তায় এমনই অভিযোগ করলেন পলাতক ব্যবসায়ী মেহুল চোকসি। ব্যাঙ্ক জালিয়াতি কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত স্বর্ণ ব্যবসায়ী নীরব মোদীর সঙ্গে একই সঙ্গে দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন মেহুল চোকসিও। তাঁর বিরুদ্ধে ১৩ হাজার কোটি টাকার ব্যাঙ্ক দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। দেশের তদন্তকারী সংস্থাগুলির হাত থেকে বাঁচতে বর্তমানে অ্যান্টিগুয়াতে আশ্রয় নিয়েছেন তিনি। আত্মপক্ষ সমর্থনে মঙ্গলবার সামনে আসা এই ভিডিও বার্তায় তাঁকে বলতে শোনা গেছে, তাঁর বিরুদ্ধে আনা যাবতীয় অভিযোগ মিথ্যা এবং ভিত্তিহীন। সম্পর্কে তিনি নীরব মোদির আত্মীয় হন। জানুয়ারি মাস থেকেই দেশের বাইরে আছেন তিনি। তাঁর বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই রেড কর্ণার নোটিশ জারি করেছে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ। তাঁকে ধরতে চাওয়া হয়েছে ইন্টারপোলের সাহায্যও। পাঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের ভুয়ো নথি দেখিয়ে বিদেশি ব্যাঙ্ক থেকে প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা জালিয়াতির অভিযোগ রয়েছে মেহুল চোকসি ও নীরব মোদীর বিরুদ্ধে। আত্মপক্ষ সমর্থনে মেহুল চোকসি আরও জানিয়েছেন, দেশের নিরাপত্তার ক্ষেত্রে তিনি বিপজ্জনক, এই কারণ দেখিয়ে তাঁর পাসপোর্ট বাতিল হওয়ায় তিনি দেশে ফিরতে পারছেন না। এবিষয়ে তিনি পাসপোর্ট বিভাগের কাছে জানতে চেয়েও কোনও উত্তর এখনো পাননি বলেও জানিয়েছেন তিনি। তদন্তকারীরা জানিয়েছেন, ভারতের আবেদন সত্ত্বেও মেহুল চোকসিকে গ্রেফতার করতে ইন্টারপোল টালবাহানা করছে।

Comments
Loading...