করোনা মোকাবিলায় ৪০ ক্রীড়াবিদের সঙ্গে কথা মোদীর, দেশের হয়ে ৪ নম্বরে নেমে করোনাকে হারাবো, বললেন সচিন

করোনা পরিস্থিতি দেশকে এনে ফেলেছে এক অভূতপূর্ব সময়ের মধ্যে। ঘরবন্দি মানুষ। থমকে দেশের অর্থনীতি। বিশ্বজুড়ে চলছে মৃত্যুমিছিল।
লকডাউনের এই অচলাবস্থায় প্রধানমন্ত্রী মোদী ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের সাহায্যে আলাদা আলাদাভাবে কথা বললেন দেশের ক্রীড়া নক্ষত্রদের সঙ্গে। সেই তালিকায় ৪ নম্বরে ব্যাট হাতে নামলেন সচিন তেণ্ডুলকর। প্রধানমন্ত্রীকে জানালেন, দেশের হয়ে যেভাবে ৪ নম্বরে নেমে ম্যাচ জেতাতাম, করোনার বিরুদ্ধেও দেশকে জেতাবো।
এদিন প্রধানমন্ত্রী দেশের ক্রীড়া নক্ষত্রদের সঙ্গে কথা বলবেন তা ছিল পূর্ব নির্ধারিত। সেই অনুযায়ী বিভিন্ন খেলার ৪০ জন কিংবদন্তিকে বেছে নেওয়া হয়। সেই তালিকায় ৪ নম্বরে ছিলেন সচিন তেণ্ডুলকর। যা অনেকেরই চোখ এড়িয়ে গেলেও মিস করেননি লিটল মাস্টার। ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের শুরুতেই তাঁর সেই অনুভূতি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েও দিয়েছেন।
সাক্ষাতের শুরুতেই সচিন মোদীকে বলেন, স্যার, ভারতীয় দলের হয়েও আমি চার নম্বরেই ব্যাট করতে নামতাম। এখানেও আমার পালা এল চতুর্থবারে। এই ঘটনা আমাকে নতুন করে আত্মবিশ্বাস দিচ্ছে। আমি গর্বিত করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আমাকে দেশের হয়ে ৪ নম্বরে ব্যাট করতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আপনাকে জানাতে চাই, ৪ নম্বরে ব্যাট করেই করোনাকে হারাবো।
দৃশ্যতই খুশি প্রধানমন্ত্রী সচিনকে বলেন, আপনারা ক্রীড়াক্ষেত্রের নক্ষত্র। মানুষ আপনাদের কথা শোনে। এবার করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে সচেতনতা গড়ে তুলতে আপনাদের সাহায্য দরকার। সচিন সঙ্গে সঙ্গে জানান, তিনি দেশের জন্য সব করতে তৈরি।
প্রধানমন্ত্রী এদিন কথা বলেছেন ২২ গজে সচিনেরই আরেক সঙ্গী বর্তমান বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের সঙ্গেও। সৌরভ অবাক প্রধানমন্ত্রী মোদী কীভাবে প্রত্যেকের সোশ্যাল মিডিয়া উপস্থিতি সম্পর্কে এত ওয়াকিবহাল। সৌরভ গাঙ্গুলি সম্প্রতি রামকৃষ্ণ মিশনে 2 হাজার কেজি চাল দিয়েছেন। সে খবর জানেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। সৌরভ জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী তাঁকে এ বিষয়ে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। উনি খুশি হয়েছেন আমি গরিব মানুষের জন্য কিছু করার উদ্যোগ নিয়েছি দেখে, বলেন বিসিসিআই সভাপতি।
লকডাউন চলাকালীন গরিব ও প্রান্তিক মানুষের কাছে খাবার পৌঁছে দেওয়ার বিষয়ে সৌরভ প্রধানমন্ত্রীকে আরও উদ্যোগী হওয়ার আবেদন রাখেন। সচিন প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছেন, লকডাউন উঠে গেলেও কী কী সাবধানতা জারি রাখতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর কাছে গোটা দেশে পরিস্থিতি মোকাবিলায় বিভিন্ন রাজ্যের পুলিশ ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রশংসা করেছেন সৌরভ।
সচিন, সৌরভ ছাড়াও এদিন প্রধানমন্ত্রী কথা বলেন বিরাট কোহলি, পি ভি সিন্ধু, অ্যাথলিট হিমা দাসের মতো ৪০ জন ক্রীড়াবিদের সঙ্গে। যে কোনও প্রয়োজনে সরকার তাঁদের ব্যবহার করতে পারে, এমন কথাও জানিয়েছেন দেশের কিংবদন্তি ক্রীড়াবিদরা।

Comments
Loading...