টাকা দিয়ে মিথ্যে TRP কিনেছে রিপাবলিক টিভি, বিস্ফোরক অভিযোগ মুম্বই পুলিশের! মানহানি মামলার হুঁশিয়ারি অর্ণব গোস্বামীর

নয়া অস্বস্তিতে রিপাবলিক টিভি। ফের সম্মুখ সমরে মহারাষ্ট্রে উদ্ধব ঠাকরের সরকার এবং অর্ণব গোস্বামী। সর্বভারতীয় এই সংবাদমাধ্যমের বিরুদ্ধে টাকা দিয়ে  টেলিভিশন রেটিং পয়েন্ট বা TRP কেনার বিস্ফোরক অভিযোগ আনলেন মুম্বই পুলিশ কমিশনার পরমবীর সিংহ। মুম্বই পুলিশের বিস্ফোরক অভিযোগের মুখে অর্ণব গোস্বামীর চ্যানেল ছাড়াও দুটি মারাঠি চ্যানেল রয়েছে। রিপাবলিক টিভির অন্যতম কর্ণধার ও সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামী মুম্বই পুলিশ কমিশনারের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করবেন বলে জানিয়েছেন। তাঁর অভিযোগ,  সুশান্ত সিংহ রাজপুত মামলা থেকে পালঘর হত্যা নিয়ে ‘সত্য’ খবর পরিবেশনের জন্যই প্রতিহিংসামূলক পদক্ষেপ করছে মুম্বই পুলিশ।

রিপাবলিক টিভি সহ তিন নিউজ চ্যানেলের বিরুদ্ধে ঠিক কী অভিযোগ মুম্বই পুলিশের?

অভিযোগ, ভুয়ো টেলিভিশন রেটিং পয়েন্ট বা টিআরপি দেখিয়ে অন্যদের প্রভাবিত করা এবং নিজেদের আয় বৃদ্ধি করেছে অর্ণব গোস্বামীর রিপাবলিক টিভি সহ তিনটি নিউজ চ্যানেল। বৃহস্পতিবার সাংবাদিক সম্মেলন করে মুম্বই পুলিশ কমিশনার জানান, সুশান্ত মৃত্যুতে প্রচুর মিথ্যে খবর ছড়িয়েছে। সেই মিথ্যে খবর ছড়ানোর ঘটনারই তদন্ত চলছে। আর তাতেই উঠে এসেছে এই টিআরপি বাড়িয়ে দেখানোর বিষয়টি। ইতিমধ্যে যা নিয়ে দু’জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে একজন একটি এজেন্সির প্রাক্তন কর্মী। ওই এজেন্সি রেটিং জানার জন্য ‘পিপলস মিটার’বসাতো। মুম্বই পুলিশ আরও জানিয়েছে, কীভাবে ভুল তথ্য ছড়ানো হয় এবং কোনও ঘটনাকে ‘নিউজ ট্রেন্ড’‌ বানিয়ে তোলা হয়, সেই সমীক্ষারই একটি অংশ এই তদন্ত। মামলার তদন্তের খবর কেন্দ্রীয় সরকারকেও দিয়েছে মুম্বই পুলিশ।

পরমবীর সিংহ আরও বলেন, অনেক সময় টাকা দিয়ে রেটিং বাড়িয়ে দেখানো হয়। বিজ্ঞাপন বাবদ বেশি অর্থ পেতেই এই কাজ করে চ্যানেলগুলো। একে জোচ্চুরি বলেই ধরা হবে। এর সঙ্গেই তাঁর বিস্ফোরক অভিযোগ, অনেক পরিবারকে বলা হয়, কয়েকটি চ্যানেল সারাদিন চালিয়ে রাখুন। যে পরিবারের কেউ ইংরেজি জানেন না, তাঁরাও সারাদিন ইংরেজি চ্যানেল চালিয়ে রাখেন। এমনকী কেউ বাড়িতে না থাকলেও টিভি চলতে থাকে। সেজন্য তাঁদের মাসে চার থেকে পাঁচ হাজার টাকা দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন তিনি।

রিপাবলিক টিভির কর্মকর্তাদের শুক্রবারের মধ্যে এই মামলার তদন্তে তলব করা হয়েছে। মুম্বই পুলিশ কমিশনার পরমবীর সিংহ জানিয়েছেন, অভিযুক্ত চ্যানেলগুলির ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট এবং বিজ্ঞাপনের থেকে তারা কত টাকা পেয়েছে, সব খতিয়ে দেখা হবে। অপরাধের সময় ওই অর্থ এসেছে কিনা সেটাও তদন্ত করবে পুলিশ। কোনও অপরাধ প্রকাশ্যে এলে সেই চ্যানেলের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট বাজেয়াপ্ত করা হবে এবং আরও কিছু টিভি চ্যানেলের বিরুদ্ধেও তদন্তের ইঙ্গিত দিয়ে মুম্বই পুলিশ কমিশনার বলেন, এই দুর্নীতিতে কোনও চ্যানেলের যত বড়ো কর্তাই থাকুন না কেন তাঁকে জেরা করা হবে। পুলিশ কমিশনার আরও বলেন, বাড়ি বাড়ি থেকে তথ্য সংগ্রহ করে চ্যানেলগুলি রেটিং–এ দুর্নীতি করতো এবং অবৈধভাবে বিজ্ঞাপনের থেকে টাকা নেয়। এটা প্রতারণা হিসেবে ধরা হচ্ছে। এগুলো মিথ্যা টিআরপি।

অর্ণব গোস্বামীর প্রতিক্রিয়া

যদিও প্রতিক্রিয়ায় রিপাবলিক টিভির কর্ণধার অর্ণব গোস্বামী জানিয়েছেন, পরমবীর সিংহ রিপাবলিক টিভির বিরুদ্ধে মিথ্যে অভিযোগ আনছেন। যেহেতু সুশান্ত সিংহ মৃত্যু তদন্তে পুলিশ কমিশনারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল রিপাবলিক টিভি, সেই কারণেই এ সব বলছেন তিনি। ওঁর বিরুদ্ধে মানহানির মামলা দায়ের করবে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। এছাড়া তাঁর আরও অভিযোগ, এক অভিযুক্ত ইন্ডিয়া টুডে চ্যানেলের নাম করেছিলেন এই ভুয়ো টিআরপি মামলায়। কিন্তু সেই সংবাদমাধ্যমের নাম নেওয়া হয়নি। এবিষয়ে মুম্বই পুলিশের দাবি, এফআইআরে মাত্র একজন সাক্ষী ইন্ডিয়া টুডে’র নাম নেয়। কিন্তু তদন্ত এগোনোর পর BARC, সাক্ষী কিংবা অভিযুক্ত কেউই ওই চ্যানেলের নাম নেয়নি। সবাই রিপাবলিক টিভি ও মারাঠি চ্যানেলের নাম করেছে। তাই আপাতত ইন্ডিয়া টুডে-র বিরুদ্ধে নয়, রিপাবলিক টিভি ও মারাঠি চ্যানেলগুলির বিরুদ্ধেই তদন্ত চালাবে মুম্বই পুলিশ।

 

Comments
Loading...