অসংবেদনশীল খবর প্রকাশের জন্য আজ তক চ্যানেলকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা, আরও ৩ সংবাদমাধ্যমকে ক্ষমা চাওয়ার নির্দেশ

সুশান্ত সিংহ মৃত্যু মামলায় অসংবেদনশীল রিপোর্টিং ও মিথ্যে খবর পরিবেশনের দায়ে আজ তক চ্যানেলকে ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করল নিউজ ব্রডকাস্টিং স্ট্যান্ডার্ডস অথরিটি‌ বা NBSA। এছাড়াও ব্রডকাস্টিং স্ট্যান্ডার্ডস কর্তৃপক্ষের নির্দেশ, ‌আজ তক‌, ইন্ডিয়া টিভি‌‌, ‌জি নিউজ‌ এবং নিউজ ২৪‌, ‌এই চার নিউজ চ্যানেলকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাইতে হবে। সুশান্ত মৃত্যু নিয়ে ভুয়ো তথ্য‌ ছড়ানোর জন্য তাদের এই সাজা দেওয়া হল বলে জানিয়েছে ব্রডকাস্ট নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

তাদের অভিযোগ, অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত নিয়ে ‌ভুয়ো তথ্য‌ প্রচার করছিল এই চ্যানেলগুলি।

গত ৬ অক্টোবর এনবিএসএ নির্দেশ জারি করে জানায়, হিন্দি চ্যানেল আজ তক সুশান্তের সম্পর্কে কোনও তথ্য প্রকাশ করার আগে প্রয়োজনীয় কর্তব্য পালন করেনি। এই প্রোগ্রামগুলি যদি কোনও ওয়েবসাইটে ভিডিও হিসেবে প্রকাশ করা হয়, তবে তার ইউটিউব ও অন্যান্য লিঙ্কও অবিলম্বে সরিয়ে দিতে হবে। সেই সঙ্গে ক্ষমা চাওয়ার সময়ে কী বলতে হবে, কবে বলতে হবে তা কর্তৃপক্ষই জানিয়ে দেবে। আজ তক চ্যানেলকে সেই নির্দেশ পালন করে একটি ভিডিও কমপ্যাক্ট ডিস্কে রেকর্ড করে কর্তৃপক্ষের হাতে তুলে দিতে হবে। ভিডিও টেলিকাস্ট হওয়ার সাত দিনের মাথায় এই ডিস্ক জমা দেওয়ার কথা বলা হয়েছে।

আজ তক, ইন্ডিয়া টিভি সহ কিছু চ্যানেলে সুশান্ত সিংহ রাজপুতের মৃতদেহ বারবার দেখানো হয়েছিল। এইভাবে সংবাদ পরিবেশনের একাধিক  নিয়ম লঙ্ঘন করেছে চ্যানেলগুলি। এই মৃত্যু সংক্রান্ত কিছু খবরের শিরোনামও প্রবল আপত্তিজনক বলে জানিয়েছে এনবিএসএ। সুশান্ত মৃত্যুতে আজ তকের ট্যুইটার হ্যান্ডেলে খবরের কিছু অংশের সঙ্গে লেখা ‘হিট উইকেট’ এর মতো ট্যাগলাইন মৃত ব্যক্তি ও তাঁর পরিবারের প্রতি অসম্মান প্রদর্শন করেছে বলে জানায় কর্তৃপক্ষ। একইভাবে, ‘পাটনার সুশান্ত মুম্বইয়ে এসে ব্যর্থ হলেন কেন?‌’, ‘‌সুশান্ত, আপনি নিজের সিনেমা (‌ছিছোড়ে) নিজেই দেখলেন না?‌‌’‌ এরকম সব শিরোনামের মাধ্যমে মৃত সুশান্ত সিংহকে অপমান করা হয়েছে বলে জানায় ব্রডকাস্টিং স্ট্যান্ডার্ডস।

এনবিএসএ একটি বিবৃতি পেশ করে জানিয়েছে, সংবাদ চ্যানেলের দায়িত্ব সংবাদ প্রচার করা। যা দেশের মানুষের উপকারে লাগবে। এটা ঠিক যে জাতীয় সংবাদসংস্থার রিপোর্ট থেকে অনেক মানুষ ন্যায়বিচার পেতে পারেন। কিন্তু এটিও গুরুত্বপূর্ণ যে, মৃত ব্যক্তিদের ব্যক্তিগত বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা যাবে না। একটি মৃত্যুর ঘটনাকে নিজেদের টিআরপি বৃদ্ধির কাজে লাগানো যাবে না।

 

Comments
Loading...