বিপন্ন মানুষের পাশে বাঙালি ফুটবলারদের সংগঠন

অভ্র মন্ডল, মেহতাব হোসেন, অর্ণব মন্ডল, মহম্মদ রফিক, সৌভিক চক্রবর্তী, প্রীতম কোটাল, প্রবীর দাস, দীপঙ্কর রায়…. নামগুলো বাঙালি ফুটবলপ্রেমীদের ভীষণ চেনা। কেউবা ফুটবল থেকে অবসর নিয়েছেন সদ্য। কেউ ফুটবল জীবনের সায়াহ্নে। আবার কেউ মধ্যগগনে। শেষ দুই দশকে, কলকাতার দুই বড় ক্লাব তথা ভারতীয় ফুটবলে চুটিয়ে খেলা বাঙালি ফুটবলাররা একজোট হয়ে একটি সংগঠন তৈরি করেছেন। সেই সংগঠনের পোশাকি নাম কিকস অ্যান্ড হেল্প। আর এই সংগঠন, দুঃস্থ, বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে।

শুরুটা হয়েছিল প্রাক্তন ফুটবলার সঞ্জয় পার্তের চিকিৎসার জন্য অর্থ সংগ্রহ দিয়ে। নিজেদের মধ্যে একটি প্রদর্শনী ম্যাচ খেলে মোট ১ লক্ষ টাকা সঞ্জয় পার্তের হাতে তুলে দিয়েছিলেন অভ্র, মেহতাবরা। তবে এখানেই কিন্তু থেমে থাকেননি তাঁরা। ইস্টবেঙ্গল জুনিয়র দলের ক্যান্সার আক্রান্ত এক ক্ষুদে ফুটবলারের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন তাঁরা। তুলে দিয়েছিলেন ৫০ হাজার টাকা।

দীপাবলির আলোয় যখন আলোকিত গোটা দেশ, তখন অন্ধকারেও বহু মানুষ। কালীপুজোর সন্ধ্যায় এমন কিছু দুঃস্থ শিশুর পাশে দাঁড়িয়েছিল ফুটবলারদের এই সংগঠন। বেশ কিছু শিশুর হাতে তুলে দেওয়া হয় নতুন জামা। এই সংগঠনের ফুটবলাররা জানিয়েছেন তাঁরা ভবিষ্যতে এরকম আরও কাজ করবেন। প্রাক্তন ফুটবলার থেকে সাধারণ মানুষ, নিজেদের সামর্থ্যে পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবেন।

Comments
Loading...