চতুর্থবারের জন্য নীরব মোদীর জামিনের আবেদন খারিজ ব্রিটেনের আদালতে

চতুর্থবারের জন্য জামিনের আবেদন খারিজ হল পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক থেকে ১৩ হাজার কোটি টাকা ঋণখেলাপির মামলায় অভিযুক্ত নীরব মোদীর। বুধবার ব্রিটেনের উচ্চ আদালত জানায়, আগেই নীরব মোদীর বিরুদ্ধে তদন্তে বাধাদানের অভযোগ রয়েছে, তাই তাঁকে জামিন দেওয়া যাবে না।
এর আগে তিনবার লন্ডনের নিম্ন আদালতে তাঁর জামিন খারিজ হওয়ার পর, মঙ্গলবার ব্রিটেনের হাইকোর্টে জামিনের জন্য আবেদন করেছিলেন নীরব মোদী। কিন্তু ওয়েস্ট মিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেট কোর্টের মতোই, সে দেশের হাইকোর্টেরও পর্যবেক্ষণ, তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের বেশ কিছু প্রমাণ নষ্ট করে দিয়েছেন নীরব মোদী। তাঁকে জামিন দেওয়ার পর বিচার প্রক্রিয়া প্রভাবিত হতে পারে মনে করছে উচ্চ আদালত।
পিএনবি ঋণখেলাপিতে অভিযুক্ত নীরব মোদীকে চলতি বছরের গত ১৯ শে মার্চ গ্রেফতার করেছিল ব্রিটিশ পুলিশ। এর ঠিক দশদিন বাদে, গত ২৯ শে মার্চ তাঁর প্রথম জামিনের আবেদন নাকচ করে দিয়ে ওয়েস্টমিনস্টার ম্যাজিস্ট্রেট কোর্ট জানিয়েছিল, অভিযুক্ত নীরব মোদী তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা বেশ কিছু প্রমাণ লোপাট করে দিয়েছেন। এরপর, শর্তসাপেক্ষে জামিনের আবেদন করেছিলেন নীরব মোদীর আইনজীবী। সে আবেদনও খারিজ করে দেওয়া হয়। তারপর গত মাসেও নীরব মোদীর তৃতীয়বার জামিনের আবেদন খারিজ হয়েছিল।
২০১৮ সালের গোড়ায় নীরব মোদী ও তাঁর আত্মীয় মেহুল চোকসির বিরুদ্ধে বিপুল অঙ্কের টাকার ঋণখেলাপির অভিযোগ ওঠে। এরপর দুজনেই দেশ ছেড়ে পালিয়ে যান।

Comments are closed.