‘বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিনের প্রতিশ্রুতি নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ নয়’, বিজেপিকে ক্লিনচিট কমিশনের

রাজনৈতিক দল চাইলে ইস্তেহারে প্রতিশ্রুতি দিতেই পারে। যতক্ষণ না সেই প্রতিশ্রুতি সংবিধানের বিরোধী হচ্ছে, ততক্ষণ তা আদর্শ নির্বাচনী বিধি ভঙ্গ করে না। তাই বিহার বিধানসভা ভোটের আগে বিনামূল্যে করোনাভাইরাস টিকা প্রদানের প্রতিশ্রুতি দিয়ে নির্বাচনী বিধি ভাঙেনি বিজেপি। ক্লিনচিট দিয়ে জানাল নির্বাচন কমিশন।

বিহার বিধানসভা ভোটের আগে বিজেপির নির্বাচনী ইস্তেহারে জায়গা পায় করোনা টিকা। গত ২২ অক্টোবর কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারামন ঘোষণা করেন, বিহারে ফের নীতীশ-বিজেপি জোট ক্ষমতায় ফিরলে ফ্রিতে করোনা টিকা পাবেন রাজ্যবাসী। যা নিয়ে তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। বিরোধী মহাজোট অভিযোগ করে মহামারির টিকা নিয়েও রাজনীতি করছে বিজেপি। এই প্রেক্ষিতে তথ্যের অধিকার আইনে আরটিআই অ্যাক্টিভিস্ট সাকেত গোখলে জানতে চেয়েছিলেন বিজেপির বিনামূল্যে করোনা ভ্যাকসিন বিতরণের প্রতিশ্রুতি নির্বাচনী বিধি বহির্ভূত কিনা। তার উত্তরে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, বিহারের ভোটে যে ১১ দফা প্রতিশ্রুতি দিয়েছে বিজেপি তাতে কোথাও নির্বাচনী আদর্শ বিধি লঙ্ঘিত হয়নি। ফ্রি করোনা ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রেও একই জবাব দেওয়া হয়েছে। সংশ্লিষ্ট আরটিআইয়ের জবাবে নির্বাচনী আদর্শ আচরণবিধির তিনটি নিয়ম তুলে ধরেছে কমিশন। যাতে বলা হয়েছে, ‘রাজ্যের নির্বাচনী ইস্তেহারে এমন কিছু থাকতে পারে না, যা সংবিধান বিরোধী, নির্বাচনী প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতাকে কলুষিত করবে বা ভোটারদের উপর অযৌক্তিক প্রভাব ফেলবে, এমন কোনও প্রতিজ্ঞা করা যাবে না এবং শুধমাত্র যে প্রতিজ্ঞাগুলি পূরণ করা যাবে, তার ভিত্তিতেই ভোটারদের আস্থা অর্জন করা যেতে পারে।’ নির্বাচন কমিশনের জবাব, উপরোক্ত ব্যাখ্যার ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে আদর্শ আচরণবিধির নিয়ম ভঙ্গ হয়নি।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন, লোকসভা ভোটের মুখে কংগ্রেস ইস্তাহারে ন্যায় প্রকল্পের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। তখনও নির্বাচনী বিধিভঙ্গ হয়নি। তাহলে এখন কোন মন্ত্রে তা বিধিভঙ্গ হবে?

Comments
Loading...