কোভিড বিধি মেনে রাম লীলা হবে, প্যান্ডেল বেঁধে বারোয়ারি দুর্গা পুজোয় না উত্তর প্রদেশের যোগী সরকারের, শুরু বিতর্ক

করোনা পরিস্থিতিতে বহু অনুষ্ঠান, পার্বণই জাঁকজমকহীন। ফিজিক্যাল ডিসট্যান্সিং মেনে দুর্গা পুজো করার জন্য ত্রিপুরা থেকে ওড়িশা সরকার একাধিক বিধি-নিষেধ জারি করেছে। সোমবার গাইড লাইন প্রকাশ করেছে মমতা ব্যানার্জির সরকার। কিন্তু দুর্গা পুজো নিয়ে উত্তর প্রদেশে যোগী সরকারের নির্দেশিকা ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

যোগী সরকার জানিয়ে দিয়েছে, এবার প্যান্ডেল খাটিয়ে বারোয়ারি দুর্গা পুজো করা যাবে না। পুজো করতে হলে বাড়িতে মূর্তি প্রতিষ্ঠা করে করতে হবে।

মণ্ডপ বেঁধে বারোয়ারি পুজোয় আপত্তি জানালেও যোগী সরকার রাম লীলা আয়োজনে ছাড়পত্র দিয়েছে। মুখ্য মন্ত্রী জানান, উত্তর প্রদেশের কোথাও এবার দুর্গা পুজোর জন্য জমায়েত করা চলবে না। ইচ্ছে হলে বাড়ির মধ্যেই পুজোর আয়োজন করা যেতে পারে। দুর্গা পুজোর অন্যতম আকর্ষণ প্যান্ডেল যেমন করা যাবে না, তেমনই ম্যারাপ বেঁধে আয়োজন করা যাবে না কোনও অনুষ্ঠান। তা সে রাস্তার ধারই হোক বা পুজো প্যান্ডেল। করোনা বিধি মেনে পুজোর আয়োজন করতে হবে জানানো হয়েছে নির্দেশিকায়। পুজোকে কেন্দ্র করে অনেক জায়গায় মেলা বসে। এ বার মেলার অনুমতি দিচ্ছে না সরকার। পাশাপাশি বিসর্জনে শোভাযাত্রা করা যাবে না বলে জানানো হয়েছে।

রাম লীলা আয়োজনের ছাড়পত্র দেওয়া নিয়ে উত্তর প্রদেশের মুখ্য মন্ত্রীর যুক্তি, রাজ্যের ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির কথা মাথায় রেখে কোভিডবিধি মেনে রামলীলা আয়োজিত হবে। এত প্রাচীন প্রথা ভাঙা যায় না। তাই অতিমারির মধ্যেও রাম লীলার আয়োজন করতে হবে। রাম লীলা আয়োজনের জন্য বেশ কিছু বিধিনিষেধ পালন করতে বলেছে উত্তর প্রদেশ সরকার। যেমন, রাম লীলা দেখার জন্য কোনও ময়দানে ১০০ জনের বেশি দর্শনার্থী জমায়েত করতে পারবেন না। মাস্ক বাধ্যতামূলক। রাম লীলা আয়োজন হবে যে ময়দানে তা স্যানিটাইজ করার ব্যবস্থা রাখতে হবে কর্তৃপক্ষকেই।

দুর্গা পুজো, দশেরা, রাম লীলা, নব রাত্রির মতো উৎসবে উত্তর প্রদেশের বহু জায়গায় মেলা বসে। এবার মেলাতেও নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে যোগী সরকার। বলা হয়েছে, মেলা হলে বহু মানুষের সমাগম হবে। সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা থাকবে। বলা হয়েছে, দুর্গা পুজো প্যান্ডেলে আয়োজন করা হলেও ভিড় হতে পারে। তাই যোগী রাজ্যে এবার কেউ দুর্গা পুজো করতে চাইলে তাঁকে বাড়িতে মূর্তি প্রতিষ্ঠা করে করতে হবে।

উত্তর প্রদেশের বারাণসী, লখনউ, এলাহাবাদ সহ একাধিক শহরে বহু বাঙালির বাস। স্বভাবতই সেখানে দুর্গা পুজো ধুমধাম করে হয়। কিন্তু করোনা কালে বারোয়ারি পুজোয় প্যান্ডেল তৈরিতে নিষেধাজ্ঞা জারি হওয়ায়, চিন্তায় পড়েছেন লখনউ, কাশী, এলাহাবাদের প্রবাসী বাঙালি দুর্গা পুজোর উদ্যোক্তারা। তাঁরা বলছেন, খোলা ময়দানে রাম লীলা আয়োজন করলে কি সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা থাকবে না? দুর্গা পুজোর ক্ষেত্রে কি তেমন কোনও গাইড লাইন প্রকাশ করতে পারতেন না মুখ্য মন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ?

Comments
Loading...