যৌন কেলেঙ্কারির জের, স্থগিত ২০১৮ তে সাহিত্যে নোবেল প্রদান

১৯৪৩ সালের পর এই প্রথম। ২০১৮তে দেওয়া হচ্ছে না সাহিত্যে নোবেল। শুক্রবার জরুরি এক বৈঠকের পর এই সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছে নোবেল প্রদানকারী দ্য সুইডিস অ্যাকাডেমি। দ্য সুইডিস অ্যাকাডেমির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ২০১৯ সালে সাহিত্যে একসঙ্গে দুটি নোবেল পুরস্কার ঘোষণা করা হবে। এদিনের প্রকাশিত বিবৃতিতে অ্যাকাডেমির অন্তর্বর্তীকালীন স্থায়ী সেক্রেটারি অ্যান্ডারস ওলসন জানিয়েছেন, অ্যাকাডেমির বিশ্বাসযোগ্যতার প্রতি সাম্প্রতিক কিছু ঘটনায় যে প্রশ্ন উঠেছে, সেই পরিস্থিতিতে এই সিদ্ধান্ত নিতে তাঁরা বাধ্য হলেন। দ্য সুইডিস অ্যাকাডেমির তরফে জানানো হয়েছে, অ্যাকাডেমির অভ্যন্তরে ও কর্যকলাপে বেশ কিছু জরুরি পরিবর্তনের সময় এসেছে। অদুর ভবিষ্যতে সেই সব পরিবর্তনের মাধ্যমে চেষ্টা করা হবে মানুষের বিশ্বাসযোগ্যতা ফিরে পাওয়ার। তার আগে, দ্য সুইডিস অ্যাকাডেমির ব্যতিক্রমী ঐতিহ্য এবং নোবেল পুরস্কারের সম্মানের কথা মাথায় রেখে এই সিদ্ধান্ত নিতে তাঁরা বাধ্য হলেন।

উল্লেখ্য, দ্য গার্ডিয়ান পত্রিকায় প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, সাহিত্যে নোবেল প্রাপকের নাম বাছাইয়ের জন্য এবছর চার সদস্যের প্যানেল গঠন করেছিল সুইডিশ অ্যাকাডেমি। সেই প্যানেলের অন্যতম সদস্য ক্যাটারিনা ফ্রস্টেনসনের স্বামী ফরাসি ফোটোগ্রাফার জ্যঁ ক্লদ আর্নল্টের বিরুদ্ধে সম্প্রতি যৌন কেলেঙ্কারির অভিযোগ এনেছেন ১৮ জন মহিলা। এরপরই সমস্যার সূত্রপাত। ক্যাটারিনা ফ্রস্টেনসনকে প্যানেল থেকে অপসারণের দাবিতে এপ্রিল মাসের গোড়ায় সুইডিশ অ্যাকাডেমির সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন তিনজন। সুইডিস অ্যাকাডেমির কার্যকলাপ ও বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন উঠছিল জন সাধারণের মনেও। তাই এদিন অ্যাকাডেমির বাকি সদস্যরা আলোচনার পর এই গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হলেন। ১৯৪৩ সালের পর প্রথম বন্ধ থাকল সাহিত্যে নোবেল প্রদান। এর আগে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় ১৯৪০ সাল থেকে ১৯৪৩ সাল পর্যন্ত বন্ধ ছিল এই সম্মান প্রদান অনুষ্ঠান।

Comments
Loading...