আধারে সুরক্ষিত তথ্য়,বললেন বিল গেটস

আধারের মাধ্য়মে তথ্য়ের গোপনীয়তা ফাঁস হয়ে যাওয়ার তত্ত্বকে উড়িয়ে দিলেন বিল গেটস। বরং পৃথিবীর অন্য়ান্য় দেশগুলিতে এই বায়োমেট্রিক পদ্ধতির প্রসারের জন্য় আর্থিক সহযোগিতা করবে বিল এবং মেলিন্দা গেটস ফাউন্ডেশন। ইনফোসিসের প্রতিষ্ঠাতা নন্দন নিলকেনিকে বিশ্বব্যাঙ্কের হয়ে এই কাজটি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলে জানান ৬২বছরের মাল্টি বিলিয়নিয়ার বিল গেটস। সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন আধারের মাধ্য়মে অত্য়ন্ত উপকৃত হবেন ভারতের মত অন্য়ান্য় দেশও। সরকারি কাজের গতি বাড়বে এই বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির ব্য়বহারের ফলে। তাতে দেশগুলি আর্থিক সমৃদ্ধির হারও বৃদ্ধি পাবে পাশাপাশি। বলেন গেটস।

শোনা গিয়েছে,ভারতের প্রতিবেশী বেশ কিছু দেশ এই প্রযুক্তি ব্য়বহারে আগ্রহ দেখিয়েছে। নিজেদের দেশে এই বায়োমেট্রিক পদ্ধতি ব্য়বহার করার জন্য় তারা ইতিমধ্য়েই দিল্লির সহযোগিতাও চেয়েছে।এটি একটি বায়ো আইডি ভেরিফিকেশন স্কিম ছাড়া কিছুই নয়।তাই এইখান থেকে তথ্য় ফাঁস হয়ে যাওয়ার কোনও ভাবেই সম্ভব নয় বলে জানান গেটস। যে সকল সংস্থা এই নম্বর ব্য়বহার করবে তাদেরকে সতর্ক থাকতে হবে। প্রতিটি আধারের কি তথ্য় কোথায় রাখা থাকছে এবং তা কারা দেখতে পাচ্ছে তা চিহ্ণিত করা প্রয়োজন। সেটা ঠিক করাই সংস্থার গুলির কাছে চ্যালেঞ্জ।ব্য়াঙ্কগুলি এক্ষেত্রে পারদর্শী বলেও জানান বিল গেটস।
মোবাইল সিমের সঙ্গে আধার সংযুক্তিকরণের ওপর জোর দেন তিনি। এতে সরকারের কাজের সুবিধে হবে বলেই অভিমত মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা গেটসের। ২০১৬সালে ভারতে এসে ভারতে আধারের মত প্রযুক্তিকে লাগু করার প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানিয়েছিলেন তিনি।অন্য়ান্য় ধনী দেশের থেকে এক্ষেত্রে অনেক এগিয়ে ভারত,সে কথাও লুকোননি তিনি।

Comments
Loading...