প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অপমান করেছেন। এই অভিযোগ তুলে ইতিহাসবিদ ইরফান হাবিবকে আইনি নোটিস পাঠালেন আলিগড় আদালতের এক আইনজীবী। তাতে বলে হয়েছে, তাঁর বিদ্বেষমূলক মন্তব্য দেশের একতা ও বৈচিত্রের মধ্যে ঐক্যের বিরুদ্ধাচরণ করেছে। দেশের সার্বভৌমত্বকে ক্ষুণ্ণ করেছে।

আলিগড় সিভিল কোর্টের আইনজীবী সন্দীপকুমার গুপ্তা জানিয়েছেন, বিভিন্ন সংবাদপত্র থেকে ইতিহাসবিদ হাবিবের এই সব ‘বিষাক্ত বিবৃতি’ সম্পর্কে তিনি ওয়াকেবিহাল হন। ইতিহাসবিদ তাঁর এই মন্তব্যগুলির জন্য সাতদিনের মধ্যে ক্ষমা না চাইলে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া আইনি পদক্ষেপ করবেন।
নোটিসে আইনজীবী বলেছেন, আপনি অমিত শাহকে তাঁর পদবি শাহ সরিয়ে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন হাবিব। তাঁর মতে, এটি পার্সি শব্দ। আপনি বলেছেন, মুসলিম সম্পদায়কে আক্রমণের লক্ষ্য নিয়ে গঠিত হয়েছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ (আরএসএস)। দেশ বিভাজনের জন্য ‘বীর’ সাভারকরের মতাদর্শকে দায়ী করেছেন। কিন্তু মহম্মদ আলি জিন্নার দ্বিজাতি তত্ত্বের কথা এড়িয়ে গিয়েছেন। কেন্দ্রীয় সরকারের স্বচ্ছতা অভিযানে গান্ধীজির চশমা ব্যবহারকে কটাক্ষ করেছেন।
প্রসঙ্গত, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা করে আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে বক্তব্য পেশ করেছিলেন ইতিহাসবিদ ইরফান হাবিব। গত সপ্তাহ থেকে সরকারিভাবে দেশজুড়ে চালু হয়েছে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন। যেখানে তিন প্রতিবেশী দেশ থেকে আগত ছয় অ-মুসলিম ধর্মাবলম্বীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

social distance