ভারত উদ্বাস্তুদের রাজধানী নয়, অসমের এনআরসি ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টে জানাল কেন্দ্র

‘উদ্বাস্তুদের রাজধানী করা যাবে না ভারতকে’, অসমের এনআরসি ইস্যুতে সুপ্রিম কোর্টকে জানাল কেন্দ্র। অসমের এনআরসি খসড়া পুনর্বিবেচনায় জন্য শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের কাছে আরও সময় চেয়ে যৌথ আবেদন জানাল কেন্দ্র ও অসম সরকার।
আগামী ৩১ শে জুলাইয়ের মধ্যে অসমের এনআরসি নিয়ে সম্পূর্ণ তালিকা প্রকাশ করতে নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে, নাগরিকপঞ্জিতে এমন অনেকের নাম অন্তর্ভুক্ত হয়েছে যাঁদের নাম থাকা উচিত নয়। অন্যদিকে, রাজ্যের বহু প্রকৃত বাসিন্দার নামও বাদ পড়েছে বলে অভিযোগ উঠছে। এই প্রেক্ষিতে সংশয়হীন এবং নির্ভুল এনআরসি খসড়া প্রস্তুত করতে শুক্রবার সুপ্রিম কোর্টের কাছে বাড়তি সময় চেয়ে আবেদন জানান সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহেতা। কেন্দ্র ও অসম সরকারের তরফে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ ও বিচারপতি আর এফ নরিমানের ডিভিশন বেঞ্চে আর্জিতে সলিসিটর জেনারেল জানান, প্রচুর মানুষের ভুল অন্তর্ভুক্তি হয়েছে এনআরসির খসড়ায়। সেই সঙ্গে বাদও গিয়েছে অনেক নাম। সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহেতা আরও জানান, অসম ও বাংলাদেশ সীমান্ত অঞ্চলে অনেক ভুল নাম অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। এরপরই সলিসিটার জেনারেল তুষার মেহেতার মন্তব্য, ভারতকে উদ্বাস্তুদের রাজধানী হতে দেওয়া যাবে না। তাই নাগরিকপঞ্জির খসড়া পরীক্ষা করার জন্য আরও সময় দিক সুপ্রিম কোর্ট।
অন্যদিকে, প্রায় ৮০ লক্ষ নাম পুনর্বিবেচনা করে দেখতে হবে বলে জানান এনআরসি স্টেট কো-অর্ডিনেটর প্রতীক হালেজা। তাছাড়া, এনআরসির শেষ লগ্নে অসমে বন্যার কাজকর্মে বাধা সৃষ্টি হয়েছে বলে শীর্ষ আদালতে জানান তিনি। এই প্রেক্ষিতে সলিসিটর জেনারেলকে বিস্তারিত তথ্য দিতে নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ ও বিচারপতি নরিমানের বেঞ্চ। মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ২৩ শে জুলাই।

Comments
Loading...