বিজেপিকে রুখতে ২২ শে নভেম্বর দিল্লিতে সব বিরোধী দলের বৈঠক ডাকলেন চন্দ্রবাবু নাইডু

গেরুয়া শিবিরকে রুখতে আগামী ২২ শে নভেম্বর সমস্ত অ-বিজেপি দলকে দিল্লিতে আহ্বান জানালেন অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। আগামী লোকসভা ভোটে বিজেপিকে ঠেকাতে চায় বিরোধী সব দলই। লোকসভা ভোটের হাওয়া পালে লাগার অনেক আগে থেকেই তাই শুরু হয়েছে বিরোধীদের একজোট হওয়ার তোড়জোড়। মূলত, তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগেই বিজেপি-বিরোধী জোটের আলোচনা শুরু হয়েছিল। এবার বিরোধী জোটে বড়সড় পদক্ষেপ। ২২ নভেম্বর দিল্লিতে বৈঠক হতে চলেছে বিরোধী দলগুলির। প্রসঙ্গত, আগেই কলকাতায় ব্রিগেডে বিজেপি বিরোধী দলগুলির সমাবেশ ডেকেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


পড়ুনঃ বিজেপিকে পরাস্ত করাই গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক দায়িত্ব। বিজেপির পরাজয় নিশ্চিত করতে সিপিআই (এম) কাজ করবেঃ মানিক সরকার


বিরোধী জোটে যোগদানের আমন্ত্রণ নিয়ে ১৯ ও ২০ নভেম্বর বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করবেন অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু। বছর ঘুরলেই সাধারণ নির্বাচন। তার আগে ২২ শে নভেম্বরের বৈঠক সফল হলে, বিরোধী জোটের এটাই হবে প্রথম বড় পদক্ষেপ। ইতিমধ্যেই ৫ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের আবহে কংগ্রেসের সঙ্গে জোটের কথা ঘোষণা করে দিয়েছেন অন্ধ্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী। শনিবার অমরাবতীতে কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক অশোক গেহলটের সঙ্গে বৈঠকের পরই তিনি বিজেপি বিরোধিতায় মহা জোটের ঘোষণা করেছেন। ২০১৯ সালে নরেন্দ্র মোদী সরকারকে চ্যালেঞ্জ ছুড়তে চন্দ্রবাবু নাইডু গত এক মাসে দেশের প্রায় সব বিরোধীদলের নেতা-নেত্রীদের সঙ্গেই দেখা করেছেন।


পড়ুনঃ ২০১৯ লোকসভা এবং ৫ রাজ্যে বিধানসভার আগে বড় ধাক্কা বিজেপির, কর্ণাটকে কংগ্রেস-জেডিএস জোট ৪, বিজেপি ১


শুক্রবার, তেলুগু দেশম পার্টির সভাপতি নাইডু ডিএমকে সুপ্রিমো স্ট্যালিনের সঙ্গেও দেখা করেন। চেন্নাইয়ে স্ট্যালিনের বাসভবনে এক ঘণ্টার দীর্ঘ বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা সবাই এক প্ল্যাটফর্মে একত্রিত হচ্ছি। এক বা দু’জনের মধ্যে মতপার্থক্য থাকতে পারে। টিডিপি ৪০ বছর ধরে কংগ্রেসের সঙ্গে পার্থক্য রেখেছে, কিন্তু এখন আমরা সবাই একত্রিত হচ্ছি’। এর আগে বৃহস্পতিবার দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবেগৌড়া এবং কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচ ডি কুমারাস্বামীর সঙ্গেও বৈঠক করেন নাইডু। বৈঠক শেষে তিনজন নেতাই জোর দিয়ে বলেন, বিরোধী দলকে ঐক্যবদ্ধ করা এবং বিজেপিকে হঠানোটাই এখন মূল লক্ষ্য। ২২ নভেম্বর দিল্লির বৈঠকেই বিরোধী জোটের ভবিষ্যত্‍‌ কর্মসূচি ঠিক করা হবে বলে খবর। চন্দ্রবাবু নাইডু জানিয়েছেন, সব বিরোধী দলকে এক ছাতার তলায় আনার চেষ্টা চলছে। সাধারণ নির্বাচনের আগেই তা সাফল্য পাবে। প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে নাইডু দিল্লিতে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীসহ বিরোধী দলের নেতাদের সঙ্গেও দেখা করেন। সম্প্রতি, কর্ণাটকে পাঁচটি আসনের উপনির্বাচনেও কংগ্রেস-জেডিএস জোটের কাছে জোর ধাক্কা খেয়েছে বিজেপি।

Comments
Loading...