গাড়ি শিল্পে মন্দার জন্য দায়ী অধিক উৎপাদন ও মজুত করে রাখার রেওয়াজ, মন্তব্য বাজাজ অটোর এমডির

অটোমোবাইল সেক্টরে মন্দার জন্য দায়ী অত্যাধিক উৎপাদন ও গাড়ি মজুত করা। তাই জিএসটি কমিয়ে এই সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। মন্তব্য বাজাজ অটোর ম্যানেজিং ডিরেক্টর রাজীব বাজাজের।
গাড়ি শিল্পে চাহিদার অভাব ও সার্বিক মন্দার পরিস্থিতিতে সরকারি হস্তক্ষেপ চেয়ে মাসখানেক আগেই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণের দ্বারস্থ হয়েছিলেন অটোমোবাইল সংস্থার প্রধানরা। সেখানে অন্তত ১০ শতাংশ জিএসটি কমানোর আর্জি জানান তাঁরা। এই সংক্রান্ত মিটিং রয়েছে আগামী ২০ শে সেপ্টেম্বর। তার কয়েকদিন আগেই গাড়ি শিল্পের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে সম্পূর্ণ ভিন্ন সুর শোনা গেল বাজাজ অটোর ম্যানেজিং ডিরেক্টরের গলায়।
ইংরেজি দৈনিক ইকনমিক টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে রাজীব বাজাজের দাবি, সংস্কার ছাড়া কোনও শিল্প একইভাবে এগোতে পারে না। তাই দেশের অটোমোবাইল সংস্থাগুলির প্রয়োজন নিজদের কাঠামোগত পরিবর্তন করা, যাতে একটি বাজারে ধাক্কা খেলেও বিশ্ববাজারে নিজেদের প্রভাব ধরে রাখা সম্ভব হয়। রাজীব বাজাজের মতে, কেবল ভারতীয় বাজারে আটকে থাকা নয়, দেশের গাড়ি উৎপাদনকারী সংস্থাগুলির উচিত বিশ্ব-বাজারে টক্কর দেওয়ার মতো উচ্চমানের গাড়ি তৈরি করা। বাজাজ অটোর ম্যানেজিং ডিরেক্টরের দাবি, গাড়ি শিল্পের বর্তমান পরিস্থিতির জন্য দায়ী অটোমোবাইল সংস্থাগুলির অতিরিক্ত হারে উৎপাদন আর গাড়ি মজুত করে রাখার রেওয়াজ। কোনও সুদূরপ্রসারী চিন্তাভাবনা ও কাঠামোগত পরিবর্তন না করায় গাড়ি শিল্পের এই দুর্দশা বলে মন্তব্য করেন তিনি। তাঁর কথায়, প্রত্যেক শিল্পেই ওঠা-নামা আছে। কবে এই মন্দা কাটবে কেউই হলফ করে বলতে পারবেন না। কিন্তু জিএসটি হ্রাস কখনওই স্থায়ী সমাধান হতে পারে না, দ্য ইকনমিক টাইমসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মন্তব্য করেন রাজীব বাজাজ। দেশের তৃতীয় বৃহত্তম মোটরসাইকেল প্রস্তুতকারী সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর মনে করেন, জুলাই-অগস্টের মধ্যে যে ৩০ শতাংশ হারে গাড়ি বিক্রি কমে গিয়েছে, তার মধ্যে ৫ থেকে ৭ শতাংশের জন্য আর্থিক মন্দাকে দায়ী করা যেতে পারে। যার ওপর অটোমোবাইল সেক্টরের হাত নেই। বাদবাকি দায় তাঁদের নিজেদেরই বলে জানান রাজীব বাজাজ।

Comments
Loading...