পিয়ারলেসের কাছে হারল ইস্টবেঙ্গল, অগ্নিগর্ভ গ্যালারি, পুলিশের লাঠিচার্জ

কলকাতা লিগের ম্যাচে হেরে গেল ইস্টবেঙ্গল। পিয়ারলেসের কাছে ০-১ গোলে হারলো আলেজান্দ্রো মেনিনডেজের দল। পেনাল্টি থেকে একমাত্র গোলটি করলেন সেই ক্রোমা। এই হারের ফলে লিগ চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে অনেকটা পিছিয়ে পড়ল লাল হলুদ। অন্যদিকে এই ম্যাচ জিতে কলকাতা লিগের শীর্ষে চলে গেল পিয়ারলেস। ৬ ম্যাচ খেলে পিয়ারলেসের সংগ্রহ ১৩ পয়েন্ট। সমসংখক ম্যাচ খেলে ইস্টবেঙ্গলের পয়েন্ট ১০।

মোহনবাগান ম্যাচে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করার পর প্রশ্ন উঠেছিল ইস্টবেঙ্গলের স্প্যানিশ কোচ আলেজান্দ্রো মেনিনডেজকে নিয়ে। ওই ম্যাচে দলের আক্রমণভাগে দুই মূল ভরসা কোলাডো এবং বিদ্যাসাগরকে রিজার্ভ বেঞ্চে বসিয়ে রেখেছিলেন স্প্যানিশ কোচ। ফলে দানা বাঁধেনি ইস্টবেঙ্গলের আক্রমণ। সোমবার ছিল আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। জিততে পারলে লিগ চাম্পিয়নশিপ দৌড়ে অনেকটাই এগিয়ে যেত ইস্টবেঙ্গল। কিন্তু এই ম্যাচে আবার সেই একই ভুল করলেন স্প্যানিশ কোচ। কোলাডো এবং বিদ্যাসাগর না থাকায় কাজটা অনেক বেশি সহজ হয়ে গেল পিয়ারলেসের।

ইস্টবেঙ্গলের আক্রমণভাগে এদিন খেললেন মার্কোস এবং রোনাল্ডো। দুজনের একজনও ফাটল ধরাতে পারলেন না বিপক্ষ রক্ষণে। মার্কোসের একটি হেড পোস্টে লাগে। এছাড়া প্রথমার্ধে আর বলার মতো কোনও ঘটনা ঘটেনি। বাধ্য হয়েই দ্বিতীয়ার্ধে কোলাডো এবং বিদ্যাসাগরকে নামান লাল হলুদের স্প্যানিশ কোচ। কিন্তু গোল আসেনি। উল্টে বক্সের মধ্যে পঙ্কজ মৌলাকে ফাউল করেন কমলপ্রীত সিং। পেনাল্টি থেকে গোল করতে কোন ভুল করেননি ক্রোমা।

ম্যাচের পর ক্ষোভ উগরে দেন ইস্টবেঙ্গল সর্মথকরা। মাঠে বোতল পরে। পরিস্থিতি সামাল দিতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। চারজন ইস্টবেঙ্গল সমর্থক গুরুতর আহত হয়েছেন। ম্যাচ শেষের পর রেফারির সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়ান ইস্টবেঙ্গল ম্যানেজার দেবরাজ চৌধুরী। ম্যাচ হারের কারণ হিসাবে খারাপ মাঠকেই দায়ী করেছেন ইস্টবেঙ্গলের স্প্যানিশ কোচ আলেজান্দ্রো। এই হারের ফলে কার্যত শেষ হয়ে গেল ইস্টবেঙ্গলের লিগ জয়ের স্বপ্ন।

Comments
Loading...