রাফাল বিতর্ক, আদালতে তথ্য গোপনের অভিযোগে সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে নয়া আবেদন

কেন্দ্রীয় সরকার মুখবন্ধ খামে অসত্য তথ্য জমা দিয়ে সুপ্রিম কোর্টকে ভুল পথে চালিত করার চেষ্টা করেছে। তাই সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রীয় সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে ‘পার্জারি’ বা আদালতে শপথ নিয়েও মিথ্যে তথ্য দেওয়ার অভিযোগে আইনি প্রক্রিয়া শুরু করার দাবি তুললেন যশবন্ত সিনহা, অরুণ শৌরি ও প্রশান্ত ভূষণ। এই মর্মে আজ সুপ্রিম কোর্টে একটি হলফনামা পেশ করেন তাঁরা।
১২ ই নভেম্বর শীর্ষ আদালতে নোট জমা দিয়ে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়, রাফাল যুদ্ধ বিমানের দাম সংক্রান্ত তথ্য Comptroller and Auditor General (CAG)-কে দেওয়া আছে। পিএসি সেই তথ্য পরীক্ষা করেছে এবং তার নির্বাচিত অংশ সংসদে পেশও করা হয়েছে। চুক্তিতে দাম সংক্রান্ত তথ্য সিএজি ও পিএসি খতিয়ে দেখায় সুপ্রিম কোর্ট নিজে তা পরীক্ষা করা থেকে বিরত থেকে রাফালের দাম নিয়ে তদন্তের দাবি খারিজ করে দেয়। কিন্তু যে সিএজি রিপোর্টের উপর ভিত্তি করে সুপ্রিম কোর্ট রায় দেয়, তেমন কোনও রিপোর্টের অস্তিত্বই তখন ছিল না। যা নিয়ে তীব্র বিতর্ক হয়। এই প্রেক্ষিতে কেন্দ্র একটি সংশোধিত রিপোর্ট পেশ করে জানায়, রিপোর্টে কিছু ব্যাকরণগত গোলমাল ছিল। যার ফলে কেন্দ্রের বক্তব্য বুঝতে সুপ্রিম কোর্টের ভুল হয়েছে। এই সংশোধিত রিপোর্টকে উল্লেখ করেই যশোবন্ত সিনহাদের আবেদন, রাফালের দাম নিয়ে আদালতে মুখবন্ধ খামে সরকারের অসত্য তথ্য পেশ, আসলে বিচারব্যবস্থার পবিত্রতাকেই ক্ষুণ্ন করে আদালতকে ভুল পথে চালিত করেছে। তাই সংশ্লিষ্ট সরকারি আধিকারিকদের বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়া শুরু করুক সুপ্রিম কোর্ট।

Comments
Loading...