ব্যবহারকারীদের তথ্য ফাঁস, প্রতিবাদে পদত্যাগ হোয়াটসঅ্যাপ অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা জ্যান কায়ুমের

ফেসবুকে তথ্য ফাঁসের প্রতিবাদ জানিয়ে পদত্যাগ করেছিলেন অ্যালেক্স স্ট্যামোস। অ্যালেক্স ছিলেন ফেসবুকের মুখ্য নিরাপত্তা আধিকারিক। সেই একই পথে হেঁটে সোমবার হোয়াটসঅ্যাপের প্রতিষ্ঠাতা এবং ফেসবুকের বোর্ড অফ ডিরেক্টরদের মধ্যে অন্যতম জ্যান কায়ুম পদত্যাগ করলেন। কেমব্রিজ অ্যানালিটিকা কান্ডে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের তথ্য ফাঁসের প্রতিবাদ জানিয়েই দায়িত্ব ছাড়লেন কায়ুম। ওয়াশিংটন পোষ্টে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন সূত্র এই খবর জানা গিয়েছে। ওয়াশিংটন পোস্ট আরও জানিয়েছে, ফেসবুক প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকেরবার্গের সঙ্গে জ্যান কায়ুমের বিবাদের সূত্রপাত ফেসবুক ও হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁসকে কেন্দ্র করেই। কায়ুমের দাবি ফেসবুকের পর এবার হোয়াটসঅ্যাপের ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁসের জন্য চাপ দেওয়া হচ্ছিল। কিন্ত সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে থাকা অসংখ্য ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁসের বিষয়টি মেনে নিতে পারেননি কায়ুম। তাই শেষ পর্যন্ত এই সিন্ধান্ত নেন।
ব্রিটিশ সংস্থা কেমব্রিজ অ্যানালিটিকাকে অ্যাকাউন্টধারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁসের অভিযোগ ওঠে ফেসবুকের বিরুদ্ধে। মোট আট কোটি ৭০ লক্ষ ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য ফেসবুক ফাঁস করে বলে অভিযোগ। ২০০৯ সালে ব্রায়ান অ্যাকটন এবং জ্যান কায়ুম যৌথভাবে তৈরি করেন বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ। ২০১৪ সালে ১৯ বিলিয়ন ডলারে তা বিক্রি করে দেওয়া হয় ফেসবুকের কাছে। যদিও মার্ক জুকেরবার্গের হাতে নিজেদের সৃস্টি তুলে দেওয়ার সময়েও প্রধান শর্ত ছিল, ব্যবহারকারীদের তথ্যের নিরাপত্তা যেন অক্ষুন্ন থাকে।

Comments
Loading...