মদ না পেয়ে স্যানিটাইজার পান করে নেশা, চলছে স্যানিটাইজার পার্টিও! অন্ধ্রে এক সপ্তাহে মৃত ১৬

মদের অভাবে বাড়ছে স্যানিটাইজার পান করে নেশা করার প্রবণতা! সোমবার পর্যন্ত স্যানিটাইজারে আসক্ত এমন ২৩৫ জন ব্যক্তিকে চিহ্নিত করল অন্ধ্র পুলিশ। অন্ধ্রপ্রদেশ পুলিশ জানিয়েছে, রাজ্যের প্রকাশম জেলায় কম করে ২৩৫ জনকে চিহ্নিত করা হয়েছে। যাঁরা মদ না পেয়ে নেশা করছেন স্যানিটাইজার পান করে।

করোনা সংক্রমণ এড়াতে মুখে মাস্ক পরার পাশাপাশি বারবার সাবান দিয়ে হাত ধোয়া বা অ্যালকোহল যুক্ত স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কারের পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এ দেশে যখন প্রথম প্রথম করোনা সংক্রমণ ছড়িয়েছিল তখন স্যানিটাইজারের পরিবর্তে কেবল অ্যালকোহল দিয়ে হাত ধুয়ে লোক হাসিয়েছেন অনেকে। কিন্তু মাস কয়েকের মধ্যে এ যেন উলট পুরাণ। এবার মদ না পেয়ে স্যানিটাইজার পানে আসক্তি জন্মাচ্ছে মানুষের!

গত সপ্তাহে অন্ধ্রে স্যানিটাইজার পান করে মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের। পুলিশের দাবি, মদের পরিবর্তে অ্যালকোহল বেসড স্যানিটাইজার পান করেই এই বিপদ ডেকে এনেছেন ওই ব্যক্তিরা। এরপর সক্রিয় হয় পুলিশ, চলে অন্ধ্রের বিভিন্ন জায়গায় খোঁজখবর। এভাবে রবিবার ৩৫ জন এবং সোমবার আরও ২০০ জন এমন ব্যক্তির খোঁজ পায় অন্ধ্র পুলিশ, যারা স্যানিটাইজার আসক্তির শিকার। অন্ধ্র পুলিশ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তিদের কাউন্সেলিংয়ে পাঠানো হয়েছে। স্যানিটাইজার পান করে নেশা করলে তা আদতে স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা ক্ষতিকারক তা নিয়ে সচেতনতামূলক প্রচারও শুরু করতে হচ্ছে প্রশাসনকে।

অন্ধ্র পুলিশ জানিয়েছে, এখন বাড়ি বাড়ি গিয়ে স্যানিটাইজার আসক্তদের খোঁজ শুরু হয়েছে। সন্দেহ হওয়ায় কয়েকটি বাড়ি থেকে প্রচুর পরিমাণ স্যানিটাইজার খালি ও ভর্তি বোতল বাজেয়াপ্ত করেছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, অন্ধ্রের কিছু অঞ্চলে নতুন করে লকডাউন জারি হওয়ায় মদের দোকানও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যাঁরা প্রায় প্রতিদিনই মদ্যপানে অভ্যস্ত তাঁরা স্যানিটাইজার পানের মাধ্যমে নেশার সুরাহা করছেন। এমনকী কুরিছেড়ু নামে এলাকায় কিছুদিন আগে স্যানিটাইজার পার্টির আয়োজন করেছিল কয়েকজন! এই স্যানিটাইজার আসক্তদের বেশিরভাগই দরিদ্র ও শ্রমজীবী মানুষ বলে জানাচ্ছে পুলিশ।

Comments
Loading...