জনসভায় ‘মুখ ফসকে’ জিন্না-নাম! সদ্য দলে যোগ দেওয়া শত্রুঘ্ন সিনহার মন্তব্যে বিড়ম্বনায় কংগ্রেস

মহম্মদ আলি জিন্না ছিলেন কংগ্রেস পরিবারের সদস্য, ভারতের স্বাধীনতায় তাঁর ভূমিকা রয়েছে, বেফাঁস মন্তব্য করে বিতর্কে জড়ালেন বিজেপি থেকে সদ্য কংগ্রেস শিবিরে নাম লেখানো শত্রুঘ্ন সিনহা। বিড়ম্বনায় কংগ্রেস।
শুক্রবার মধ্যপ্রদেশের চিন্দওয়াড়ায় এক নির্বাচনী সভায় ভাষণ দিতে গিয়ে শত্রুঘ্ন সিনহা বলেন, কংগ্রেস মহাত্মা গান্ধী থেকে সর্দার বল্লভভাই প্যাটেল, মহম্মদ আলি জিন্না থেকে জওহরলাল নেহরু, ইন্দিরা গান্ধী থেকে রাজীব গান্ধী, রাহুল গান্ধী থেকে নেতাজী সুভাষচন্দ্র বসুর দল। ভারতের স্বাধীনতার সংগ্রামে তাঁরা উল্লেখযোগ্য ভূমিকা নিয়েছিলেন, এই কারণেই তিনি এই দলে যোগ দিয়েছেন, মন্তব্য শত্রুঘ্ন সিনহার।
পাটনা সাহিব কেন্দ্রের বিদায়ী সাংসদের এহেন মন্তব্যে স্বাভাবিকভাবে তীব্র বিতর্ক তৈরি হয়। বিজেপি নেতা মুখতার আব্বাস নাকভির টিপ্পনি, ‘জিন্নার আত্মা শত্রুঘ্ন সিনহার শরীরে ঢুকে গিয়েছে।’ অন্যদিকে, কংগ্রেসে নবাগত নেতার এই মন্তব্যের দায় নিজেদের ঘাড়ে নিতে চাইছে না দল। শত্রুঘ্নকেই নিজের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন পি চিদম্বরম।
শনিবার অবশ্য নিজের বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়ে শত্রুঘ্ন সিনহা বলেন, জিন্না নয়, তিনি আসলে মৌলানা আজাদের নাম বলতে গিয়েছিলেন। কিন্তু মুখ ফসকে জিন্নার নাম বেরিয়ে গিয়েছে।
বিজেপি ছেড়ে কংগ্রেসে আসার পর, একদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উদ্দেশ্যে আক্রমণের ধার বাড়াচ্ছেন শত্রুঘ্ন সিনহা, অন্যদিকে বেফাঁস মন্তব্য করে কংগ্রেসকে বিড়ম্বনায়ও ফেলেছেন। সম্প্রতি বিএসপি নেত্রী মায়াবতী ও সমাজবাদী পার্টির নেতা অখিলেশ যাদবকে ‘প্রাইম মিনিস্টার মেটিরিয়াল’ বলে বিড়ম্বনায় পড়েছিলেন বলিউডের অ্যাংরি ইয়ং ম্যান শত্রুঘ্ন সিনহা।

Comments
Loading...