লকডাউনে ই-রেজিস্ট্রেশনে নজির গড়ল বাংলা, দেশে প্রথম ফ্ল্যাটের অনলাইন রেজিস্ট্রি করল Siddha Group

লকডাউনের মধ্যে বাড়ি থেকে কাজের উপর জোর দিতে হয়েছে সমস্ত সেক্টরকে। এই পরিস্থিতিতে অনলাইনের মাধ্যমে ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনে পথ দেখাল পূর্ব ভারতের অন্যতম আবাসন শিল্প সংস্থা সিদ্ধা (Siddha) গ্রুপ। এ রাজ্যের কলকাতাতেই ই-রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে প্রথম ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশন করল তারা।
আবাসন শিল্পের ক্ষেত্রে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম কাজে লাগানোয় পথপ্রদর্শক হল সিদ্ধা গ্রুপ। কলকাতায় তাদের সিদ্ধা গ্যালাক্সিয়া টু-এর ফ্ল্যাট ক্রেতাদের হাতে তুলে দিল ই-রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারাসতের বাসিন্দা সঙ্ঘমিত্রা সেন ও সঞ্জয় সেন ২০১৬ সালের ৮ নভেম্বর গ্যালাক্সিয়া টু প্রোজেক্টের একটি ফ্ল্যাট বুক করেন। তাঁরাই প্রথম ই-রেজিস্ট্রেশনের মাধ্যমে নিজেদের ফ্ল্যাটের চাবি পাচ্ছেন।
সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর সঞ্জয় জৈনের জানান, আমরা ভীষণ আনন্দিত যে, আবাসন শিল্পে সিদ্ধা গ্রুপই প্রথম, যারা ই-রেজিস্ট্রেশনে ভারতে পথপ্রদর্শক হওয়ার নজির গড়ল। পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে অভিনন্দন জানাচ্ছি, তারাই প্রথম রাজ্য, যেখানে ই-রেজিস্ট্রশনের মাধ্যমে আবাসনের রেজিস্ট্রশনের কাজ শুরু হয়েছে। এই প্রক্রিয়া এই মুহূর্তে দেশের অর্থনীতি এবং আবাসন শিল্পের ভবিষ্যতের জন্য ভীষণ প্রয়োজনীয়।

কীভাবে ফ্ল্যাট রেজিস্টেশন করবেন?

প্রথমে https://wbregistration.gob.in-এ গিয়ে রেজিস্ট্রেশন অপশনে যেতে হবে। তারপর ধাপে ধাপে PDF ফাইল আপলোড করতে হবে। যেখানে থাকবে আবাসনের সাইট প্ল্যান থেকে ফ্লোর প্লান। আবেদনকারীর ফটো, ফিঙ্গারপ্রিন্ট, প্যান কার্ড, আধার কার্ড বা ভোটার কার্ড ইত্যাদি পরিচয়পত্রের উভয় দিক স্ক্যান করে আপলোড করতে হবে সংশ্লিষ্ট সাইটে। এরপর এই e-deed আপলোড করে দিতে হবে। আবেদন অনুমোদিত হলে রেজিস্টার্ড মোবাইল নম্বরে চলে আসবে টেক্সট মেসেজ। পশ্চিমবঙ্গ সরকারের নির্দেশিকা অনুযায়ী, ই-রেজিস্টেশনে ফ্ল্যাটের পেমেন্ট করলে মিলছে বড় মূল্যের আর্থিক ছাড়ও।
তাই এখন ঘরে বা অফিসে বসেই নিজের স্বপ্নের বাড়ির রেজিস্ট্রেশন করে ফেলতে পারবেন কোনও চিন্তা ছাড়াই।
১৯৮৬ সাল থেকে আবাসন শিল্পে পরিচিত নাম সিদ্ধা গ্রুপ। কোনও বাড়তি খরচ না করে নিরাপদ, টেকসই এবং আরামদায়ক পরিবেশের ঠিকানা দিয়েছে তাদের বিভিন্ন প্রকল্প। খড়দা, বিটি রোড, রাজারহাট, সাদার্ন বাইপাস, ইএম বাইপাস সহ একাধিক জায়গায় রয়েছে তাদের প্রকল্প। এছাড়া মুম্বইয়েও রয়েছে সিদ্ধার স্মার্ট হোম প্রোজেক্ট।

Comments
Loading...